default-image

করোনা পরিস্থিতিতে অতি দ্রুত টিকার অনুমোদন দিয়ে বিশ্বকে চমক দিয়েছে রাশিয়া। কিন্তু তাদের উদ্যোগে আস্থা নেই অনেকের। রাশিয়ার পক্ষ থেকে টিকাটিকে নিরাপদ ও কার্যকর বলে আশ্বস্ত করা হচ্ছে। তবুও মন গলাতে পারছে না ট্রাম্প প্রশাসনের। বার্তা সংস্থা সিএনএনকে রাশিয়ার কর্মকর্তারা বলেছেন, দ্রুত টিকা আনতে ট্রাম্প প্রশাসন–গৃহীত উদ্যোগ ‘অপারেশন র‌্যাপ স্পিড’কে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার প্রস্তাব দিয়েছেন তাঁরা। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে তাঁদের প্রস্তাবে সাড়া দেওয়া হয়নি। রাশিয়ার চিকিৎসাক্ষেত্রে অগ্রগতিকে যুক্তরাষ্ট্র বলে দিয়েছে, তাদের পথ বন্ধ।

রাশিয়ার একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেছেন, ‘রাশিয়া সম্পর্কে মার্কিনপক্ষের মধ্যে সাধারণ অনাস্থা দেখানো হয়েছে। এ অনাস্থা থেকেই টিকা, পরীক্ষা ও চিকিৎসার মতো রাশিয়ার প্রযুক্তি যুক্তরাষ্ট্রে গৃহীত হয়নি।

গতকাল বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কাইলি ম্যাকন্যানি বলেছেন, রাশিয়ার নতুন টিকা সম্পর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জানানো হয়েছে। মার্কিন টিকাগুলোকে কঠোর তৃতীয় ধাপের মানবপরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হবে এবং উচ্চ মানসম্মত হতে হবে।

অন্য মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, রাশিয়ার টিকা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র এমন ভাব দেখা যেন একে গোনায় ধরা হয়নি। এ টিকা মানুষ তো দূরের কথা, যুক্তরাষ্ট্র বানরের ওপরেও প্রয়োগ করবে না।

গত মঙ্গলবার রাশিয়া বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাসের টিকা অনুমোদন দেওয়ার কথা জানায়। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, তাঁর এক মেয়ের শরীরেও টিকাটি দেওয়া হয়েছে। রাশিয়ার টিকা অনুমোদন পেলেও এর বিস্তৃত পরীক্ষা হয়নি বলে তাদের দাবি সম্পর্কে গবেষকেরা সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। বিশ্বজুড়ে রাশিয়ার টিকার বিষয়টি মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে।

সিএনএন জানিয়েছে, কার্যকর টিকার খোঁজে বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত ২০টির বেশি টিকা নিয়ে মানবপরীক্ষা চলছে। এ টিকা তৈরির সঙ্গে কোটি কোটি মানুষের স্বাস্থ্যের সঙ্গে কোটি কোটি ডলারের বাণিজ্য জড়িত।

রাশিয়ার কর্মকর্তারা বলছেন, তাঁদের টিকা সম্পর্কে তথ্য বিনিময়ে তাঁরা আগ্রহী। এতে মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিগুলো তাদের দেশেই এ টিকা তৈরি করতে পারবে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি মার্কিন কোম্পানি রাশিয়ার টিকা নিয়ে উৎসাহ দেখিয়েছে। অবশ্য এ প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম প্রকাশ করা হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্রের বাজে প্রতিক্রিয়া শোনার পর রাশিয়ার সূত্র বলছে, ওয়াশিংটনের অবশ্যই রাশিয়ার টিকা নিয়ে গুরুত্বসহকারে ভাবা উচিত। রাশিয়ার তৈরি ‘স্পুটনিক-৫’ টিকাটি মার্কিনদের জীবন বাঁচাতে পারে।

রাশিয়ার জ্যেষ্ঠ একজন কর্মকর্তা বলেছেন, ‘আমাদের টিকা যদি অধিক কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়, তবে প্রশ্ন উঠবে যুক্তরাষ্ট্র কেন একে গুরুত্ব দিয়ে নেয়নি। টিকা গ্রহণের ক্ষেত্রে রাজনীতি কেন সামনে এসেছে।’

রাশিয়ার কর্তৃপক্ষ বলছে, লাতিন আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও এশিয়ার কমপক্ষে ২০টি দেশ তাদের টিকা নিয়ে আগ্রহ দেখিয়েছে। এর মধ্যে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে বলেছেন, রাশিয়ার টিকা নিয়ে তাঁর যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস আছে। মেক্সিকোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীও বলেছেন, টিকা নিয়ে আলোচনা করছেন তাঁরা।

তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শেষ না হলেও রুশ কর্মকর্তারা বলেছেন, টিকাটি নিরাপদ ও স্থিতিশীল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। এটি মানবদেহে প্রয়োজনীয় রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাও গড়ে তুলতে পেরেছে। টিকাটি উদ্ভাবন করেছে রুশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান গামালিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট। সহযোগিতা করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

মার্কিন সরকারের পরামর্শক ও জ্যেষ্ঠ একজন কর্মকর্তা বলেছেন, রাশিয়ার টিকার কোনো নমুনা মার্কিন সরকারের কাছে নেই। রাশিয়ায় এখন রোগী বেড়েছে। তারা নিজেরা ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা চালাতে পারে। তবে তারা এটা যথেষ্ট পরিমাণে পরীক্ষা করেনি। এ টিকা নিয়ে যথেষ্ট নিরাপত্তা তথ্য ছিল।

রাশিয়া ঘোষণা করেছে, ২০টি দেশ তাদের তৈরি স্পুটনিক-৫ টিকাটি পেতে ১০০ কোটি ডোজের আগাম ফরমাশ দিয়েছে। বিদেশি সহযোগীদের নিয়ে এক বছরে তারা পাঁচটি দেশে ৫০ কোটি ডোজ টিকা তৈরি করতে সক্ষম হবে। আগামী অক্টোবর নাগাদ তারা টিকা ব্যাপক আকারে উৎপাদন শুরু করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা রাশিয়ার টিকাটিকে কৌতুক বলেছেন। তিনি বলেছেন, রাশিয়া পরীক্ষার তিনটি ধাপ সম্পন্ন করেনি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা যুক্তরাষ্ট্র কেউ একে গুরুত্ব দিয়ে দেয়নি। সে তুলনায় টিকার দৌড়ে জেতার খুব কাছাকাছি অবস্থানে রয়েছে।

চীনা টিকা নিয়ে মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, টিকা তৈরি ও পরীক্ষার ক্ষেত্রে চীন অনেক গুরুত্ব ও দায়িত্বসম্পন্ন কাজ করছে। তারা বৈশ্বিক পর্যায়ে স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া পাচ্ছে এবং তারা নীতিমালা মানার চেষ্টা করছে। তবে রাশিয়া এটা মানুষকে দেখানোর জন্য করেছে। পুতিনকে প্রশ্ন করার সাহস কারও নেই। রাশিয়ার টিকার কার্যকারিতার মান মার্কিন মানের সঙ্গে মিলবে না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0