নাম ট্রেডমার্ক করে রাখছেন হকিং

বিজ্ঞাপন
default-image

বিশ্বখ্যাত ব্রিটিশ পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং তাঁর নাম ট্রেডমার্ক করে রাখছেন। এতে স্টিফেন হকিংয়ের নাম কোনো ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহার করতে অনুমতি নিতে হবে।
৭৩ বছর বয়সী হকিং তাঁর নাম ট্রেডমার্ক করতে ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি অফিসে আবেদন করেছেন। তাঁর নাম ভাঙিয়ে অবৈধভাবে পণ্য বিক্রি রোধে এই পদক্ষেপ নিচ্ছেন তিনি।
বর্তমানে কেম্ব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাপ্লাইড ম্যাথমেটিকস অ্যান্ড থিওরিটিক্যাল ফিজিকস বিভাগে গবেষণা পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন হকিং। নাম পেটেন্ট করা প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘হকিংয়ের এটা ব্যক্তিগত বিষয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো বিষয় জড়িত নেই। তিনি তাঁর নাম এবং সাফল্য সুরক্ষার জন্য এই পদক্ষেপ নিতে পারেন।’
দ্য সানডে টাইমসের এক খবরে বলা হয়েছে, হকিং মূলত দাতব্য কাজে ব্যবহারের জন্য নাম ট্রেডমার্ক করাচ্ছেন। এতে পদার্থবিদ্যার প্রসার, বা মটর নিউরন রোগের গবেষণার জন্য কোনো সংস্থা তৈরি করার সুযোগ হবে। মটর নিউরন রোগে আক্রান্ত হয়ে প্যারালাইজড হয়ে যান তিনি। নাম ট্রেডমার্কের আওতায় কম্পিউটার গেম, হুইলচেয়ার, শুভেচ্ছা কার্ড বা হেলথকেয়ার পণ্য পড়বে।

ট্রেডমার্ক অ্যাটর্নিস নামের সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট ক্রিস ম্যাকলিউড বলেন, হকিং তাঁর নাম ট্রেডমার্ক করায় এ থেকে লাখো ডলার আসতে পারে। এটা নির্ভর করছে তাঁর পরামর্শকেরা এই নামটিকে কীভাবে ব্র্যান্ডিংয়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করবেন তার ওপর।
এর আগে জেকে রাউলিং, ডেভিড বেকহ্যামের মতো তারকা তাঁদের নাম ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বিজ্ঞানীদের মধ্যে ব্রিটিশ পদার্থবিজ্ঞানী ব্রায়ান কক্সও এ ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন