default-image

করোনা মহামারির এ সময়ে স্মার্টফোন এবং অন্যান্য গ্যাজেট নিয়মিত পরিষ্কার রাখা জরুরি। বিশেষ করে একদল অস্ট্রেলীয় গবেষকেরা যে দাবি করছেন, এরপর কোনো অজুহাত দেখানো উচিত হবে না কোনোমতেই।

গবেষকদের সে গবেষণাকর্ম প্রকাশিত হয়েছে বিজ্ঞান সাময়িকী ‘ভাইরোলজি জার্নাল’-এ। তাতে বলা হয়েছে, পরীক্ষাগারের তাপমাত্রা ও আর্দ্রতায় কাচ, স্টেইনলেস স্টিল এবং কাগজ কিংবা পলিমার ব্যাংক নোটে মাসখানেকের মতো করোনাভাইরাস টিকে থাকতে পারে।

গবেষণাপত্রে আরও বলা হয়েছে, ‘কাচ ও ভিনাইলে সার্স-কোভ-২ ভাইরাসের টিকে থাকা মানে টাচস্ক্রিনযুক্ত ডিভাইসগুলো করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য উৎস। তাই সেগুলো নিয়মিত জীবাণুমুক্ত করতে হবে। একাধিক ব্যক্তি ব্যবহার করলে তো বটেই।’

বিজ্ঞাপন

শুধু কাচ নয়, ব্যাংক নোটের উল্লেখও করা হয়েছে। সেটা কাগুজে কিংবা পলিমার প্লাস্টিকের হোক। গবেষণাপত্রটিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘কিছু গবেষণায় বলা হয়েছে পলিমার নোটের তুলনায় কাগুজে নোট বেশি জীবাণু ধারণ করে, তবে আমাদের তথ্য বলছে, দুই ধরনের ব্যাংক নোটেই ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ২৮ দিন সার্স-কোভ-২ ভাইরাস টিকে থাকে। তবে পলিমার নোটে তুলনামূলক দ্রুত ভাইরাস নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে।’

এর আগে আরেক গবেষণায় অবশ্য বলা হয়েছিল, কাচ ও স্টেইনলেস স্টিলে ছয় দিন পর্যন্ত টিকে থাকে করোনাভাইরাস। সেটুকু সময়েও তো অনেকে সংক্রমিত হতে পারেন। আবার অনেকে গবেষণার পদ্ধতি ঠিক ছিল কি না, তা নিয়েও সন্দেহ দেখিয়েছেন।

সে যাহোক, আপাতত সম্ভাব্য সমাধান হলো, যেসব ডিভাইস সব সময় স্পর্শ করছেন, সেগুলো নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন। আর নিয়মিত হাত ধোয়ার কথা ভুললে কিন্তু চলবে না।

মন্তব্য করুন