default-image

বলিউড তারকাদের ভেতরে এই মুহূর্তে আয়ের দিক থেকে সবার ওপরে অক্ষয় কুমার। মহামারিকালে দানের দিক থেকেও নিজের নামটা ওপরের দিকেই রাখছেন তিনি। এবার গৌতম গম্ভীর ফাউন্ডেশনে করোনার বিরুদ্ধে লড়তে হাসপাতালগুলোর সহায়তায় ১ কোটি রুপি বা ১ কোটি ১৩ লাখ টাকা দিলেন তিনি। এই ফাউন্ডেশন একটি টুইট করে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

গৌতম গম্ভীর ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘এই অন্ধকার সময়ে প্রতিটা সাহায্য একটু করে আলো নিয়ে আসে। ধন্যবাদ অক্ষয় কুমার, এই দুঃসময়ে জিজিএফকে দেওয়া আপনার এই অর্থ মানুষের উপকারে আসবে। আমরা করোনায় আক্রান্ত দরিদ্রদের খাবার, ওষুধ আর অক্সিজেনের পেছনে এই অর্থ খরচ করব। সৃষ্টিকর্তা আপনার মঙ্গল করুন।’ টুইটটি রিটুইট করে অক্ষয় লিখেছেন, ‘আসলেই ভয়ংকর দুঃসময় যাচ্ছে। এমন সময় আমি মানুষের পাশের দাঁড়াতে পারছি। এটা আমার সৌভাগ্য। এই মহামারিকাল দ্রুত শেষ হোক। সবাই নিরাপদে থাকবেন।’ অক্ষয় কুমার নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। কিছুদিন আগে তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে ২০২০ সালে বলিউডের এই হিট মেশিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘পি এম কেয়ারস’ফান্ডে দিয়েছিলেন ২৫ কোটি রুপি। টুইটারে সেই খবর জানিয়ে লিখেছিলেন, ‘এই মুহূর্তে বেঁচে থাকা সবচেয়ে জরুরি। মানুষের জীবনের ওপরে আর কিচ্ছু নেই। আর জীবন বাঁচাতে যা করার, আমাদের তা-ই করতে হবে। নিজের জমানো অর্থ থেকে মোদি সরকারের ফান্ডে ২৫ কোটি রুপি দিতে পেরে আমার খুব ভালো লাগছে। আসেন, আমরা মানুষ বাঁচাতে এগিয়ে আসি।’

default-image

শেষ বাক্যে অক্ষয় কুমার লিখেছেন, ‘জান হ্যায় তো জাহান হ্যায়’। অর্থাৎ মানুষ থাকলেই জগৎ থাকবে।
অবশ্য অক্ষয়ের আয়ের তুলনায় এগুলো এমন বড় সংখ্যা নয়। বছরে গড়ে ৭০০ কোটি রুপি আয় করেন তিনি। ফোর্বসের বিশ্বের সবচেয়ে অর্থ উপার্জনকারী তারকার তালিকায় একমাত্র ভারতীয় হিসেবে নাম আছে তাঁর। ২০২১ সালের হিসাব অনুযায়ী, ৩২ কোটি ৫০ লাখ ডলার বা ২ হাজার ৭৪৩ কোটি টাকার মালিক তিনি। ছবিপ্রতি তিনি ১৩৫ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নেন। হ্যাঁ, আপনি যদি কোনো সিনেমা বানান, আর সেখানে অক্ষয় কুমারকে হিরো হিসেবে চান, তাহলে আপনার পকেট থেকে চলে যাবে বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৫৫ কোটি টাকার বেশি!

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন