আসামে বজরঙ্গি দলের সদস্যরা উঠেপড়ে লেগেছেন ‘পাঠান’ সিনেমার প্রদর্শনী আটকাতে। সিনেমাটি ২৫ জানুয়ারি ভারতজুড়ে মুক্তি পাচ্ছে। তার আগেই গুয়াহাটির নারেনগি এলাকার সিনেমা হলে ‘পাঠান’ না আনতে দলবল যায়। তাদের দাবি, ‘পাঠান’ এখানে চালানো যাবে না। এ সময় পাশেই এই বজরঙ্গ দলের অন্য শাখার সদস্য ‘পাঠান’–এর পোস্টার ছিঁড়ে ফেলে আগুন ধরিয়ে দেন। গত শুক্রবার এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় আসামের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘খান তো আমাকে ফোন দেননি, বলেননি সমস্যা সম্পর্কে। কিন্তু বলিউডের অনেকেই তো আমাকে ফোন দেন। তিনি বললে আমি বিষয়টা দেখতাম।’ এ সময় তিনি বলেন, তিনি শাহরুখকে চেনেন না।

তখন সাংবাদিকেরা তাঁকে বলেন, শাহরুখ বলিউড সুপারস্টার। মুখ্যমন্ত্রী এ বিষয়ে আর কথা না বাড়িয়ে বলেন, রাজ্যের মানুষের হিন্দি ভাষার ছবি নিয়ে নয়, আসামে কী হচ্ছে, সেসব নিয়ে ভাবা উচিত। আসামের ছবি ‘ডক্তর বেজবরুরা পার্ট-২’ মুক্তি পাবে শিগগিরই। সিনেমার পরিচালক ব্রোজেন বরুয়া গত বছর মারা গেছেন। তাঁর সিনেমাটি দর্শকের দেখা উচিত। এগুলো নিয়ে ভাবা উচিত। পরে তিনি গণমাধ্যমে আরও বলেন, ‘পাঠান’ ঘিরে আইনশৃঙ্খলার লঙ্ঘন হলে অবশ্যই অ্যাকশন নেওয়া হবে, একই সঙ্গে মামলাও করা হবে।

চার বছর পর হিন্দি সিনেমার দুনিয়ায় শাহরুখ খানের ফেরার যাত্রা শুরু হয় বিতর্ক দিয়ে। তাঁর নতুন সিনেমা ‘পাঠান’-এর গান ‘বেশরম রং’ মুক্তির পর থেকেই বিতর্কের শুরু। কেউ কেউ গানটিকে ‘অশ্লীল’ আখ্যা দিয়েছেন, কেউ আবার গানে দীপিকা পাড়ুকোন গেরুয়া রঙের বিকিনি পরায় ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগ তুলেছেন। ‘পাঠান’-এর গান ‘বেশরম রং’ মুক্তির পর যাঁরা প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন, তাঁদের অনেকেই বিজেপি নেতা। তাঁদের মধ্যে আছেন নরোত্তম মিশ্র, রাম কাদামসহ আরও অনেকে। তাঁদের দাবিমতে, ‘সংশোধন’ না করে ‘পাঠান’-এর মুক্তি বন্ধ করে দেবেন বলে হুমকি দেন নরোত্তম মিশ্র। বিজেপির এমএলএ রাম কম বলেন, ‘বেশরম রং’ গানটিতে হিন্দু ধর্মের অবমাননা করা হয়েছে।