ভারতীয় নির্মাতা সঞ্জয় গাধভি মারা গেছেন। আজ রোববার সকালে মুম্বাইয়ে মৃত্যু হয় ৫৬ বছর বয়সী এই পরিচালকের। সঞ্জয় গাধভির মেয়ে সানজিনা গাধভি ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে বাবার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মৃত্যু হয়েছে পরিচালকের। প্রাথমিকভাবে মৃত্যুর কারণ জানা না গেলেও ধারণা করা হচ্ছে, হার্ট অ্যাটাকেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

আরও পড়ুন

জনপ্রিয় দক্ষিণি অভিনেতার রহস্যময় মৃত্যু

মাত্র ৩ দিন পরেই ৫৭-তে পা দিতেন সঞ্জয়, তার আগেই চলে গেলেন তিনি। দীর্ঘ কর্মজীবনে বেশ কয়েকটি সিনেমা বানালেও ‘ধুম’ নির্মাতা হিসেবেই পরিচিত ছিলেন সঞ্জয়।

সঞ্জয় গাধভির মেয়ে সানজিনা গাধভি জানান, তাঁর বাবা দিব্যি সুস্থ ছিলেন, অন্য কোনো স্বাস্থ্যগত সমস্যাও ছিল না।

১৯৬৫ সালের ২২ নভেম্বর মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ে জন্মগ্রহণ করেন সঞ্জয়। ২০০০ সালে তাঁর পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘তেরে লিয়ে’ সেভাবে আলোচনায় আসেনি। তবে দ্রুতই যশরাজ ফিল্মসের মতো বড় প্রযোজনা সংস্থার সঙ্গে কাজের সুযোগ পান।

সঞ্জয় গাধভি
এক্স থেকে

২০০২ সালে যশরাজের ব্যানারে করেন ‘মেরে ইয়ার কি শাদি হ্যায়’, ছবিটি সাফল্য পায়। তবে সঞ্জয় ব্যাপক আলোচনায় আসেন ২০০৪ ও ২০০৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ধুম’ ও ‘ধুম ২’-এর মাধ্যমে। এই দুই সিনেমার ব্যাপক ব্যবসায়িক সাফল্য তাঁকে আলোচনায় নিয়ে আসে।

তবে সাফল্যে পেলেও এরপর আর তাঁর ক্যারিয়ার সেভাবে এগোয়নি। পরে তেমন কোনো উল্লেখযোগ্য সিনেমা বানাতে পারেননি সঞ্জয়। ২০২০ সালে মুক্তি পায় সঞ্জয় পরিচালিত সর্বশেষ সিনেমা ‘অপারেশন পারিন্দে’।

সঞ্জয় গাধভির আকস্মিক মৃত্যুতে শোকে বিহ্বল বলিউড তারকারা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শোক প্রকাশ করেছেন অনেকে। ‘ধুম’ অভিনেতা অভিষেক বচ্চন সঞ্জয়ের একটি ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘গত সপ্তাহেই “ধুম”-এর শুটিংয়ের কত স্মৃতি নিয়ে আমাদের কথা হলো। কে জানত এভাবে তাঁকে নিয়ে পোস্ট লিখতে হবে। এমন একটা সময় আমার ওপর তিনি আস্থা রেখেছিলেন, যখন নিজের ওপরই আমার বিশ্বাস ছিল না। তিনিই আমাকে প্রথম হিট সিনেমা দেন।’

‘ধুম ২’ অভিনেত্রী বিপাশা বসু লিখেছেন, ‘এত দ্রুতই চলে গেলে! তোমার আত্মা শান্তি পাক, বন্ধু।’

সঞ্জয় গাধভি স্ত্রী জিনা ও দুই মেয়েকে রেখে গেছেন।