চলতি বছর ক্যারিয়ারের সেরা সময় পার করছেন আলিয়া। ২০২২ সালে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়া তাঁর তিন সিনেমা ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াবাড়ি’, ‘আরআরআর’ ও ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সুপারহিট। শেষ ছবিতে প্রথমবারের মতো জুটি বেঁধেছিলেন স্বামী রণবীরের সঙ্গে।

সাফল্যের বছরে নতুন অতিথির আগমন যেন আনন্দের মাত্রা আরও এক ধাপ বাড়িয়ে দিল। মা হওয়ার পর দেওয়া এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে অভিনেত্রীর বার্তায় যেন সে উচ্ছ্বাসই ঝরে পড়ছে, ‘আমাদের জীবনের সেরা ঘটনা...আমাদের মেয়ে ভূমিষ্ঠ হয়েছে…কী মিষ্টি মেয়ে হয়েছে…মা ও বাবা হিসেবে আমাদের খুশি উপচে পড়ছে।’

জুনে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর থেকেই আলিয়ার চোখেমুখে অন্য রকম উচ্ছ্বাস ধরা পড়ে ছিল। এ সময় তিনি নিজের প্রযোজিত ‘ডার্লিংস’ ও রণবীরের সঙ্গে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছবির প্রচার করেছেন। নিয়মিতই নিজেদের ছবি পোস্ট করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে, হবু মায়েদের জন্য পোশাকের ব্যবসাও শুরু করেছেন।

মাতৃত্ব প্রসঙ্গে তখন দেওয়া সাক্ষাৎকারে আলিয়া বলেছিলেন, ‘প্রথমবার মা হতে যাচ্ছি, এই উত্তেজনার সঙ্গে কোনো কিছুর তুলনা চলে না, প্রতিটি দিন যেন স্বপ্নের মতো লাগছে।’ মা হওয়ার পর তাঁর কাজের ধরনে কোনো পরিবর্তন আসবে না বলেও জানান। বরং কর্মজীবী মা হিসেবে আরও ভালো কাজ করে উদাহরণ তৈরি করতে চান তিনি।

বাবা হওয়া নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে রণবীরকেও। এই অভিনেতা সাধারণত নিজের ব্যক্তিগত জীবন ব্যক্তিগত রাখতেই পছন্দ করেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেই, ছবির মুক্তির আগে ছাড়া সাক্ষাৎকারও দেন না। সেই রণবীরও প্রকাশ্যে জানিয়েছেন সন্তানের সঙ্গে নিজের সম্পর্ক কেমন হবে সে প্রসঙ্গে, ‘আমরা এমন একটা প্রজন্ম, যাদের বাবারা ভীষণ ব্যস্ত ছিলেন। মূলত মায়েরাই আমাদের বড় করেছেন। সে জন্যই আমরা মায়ের সঙ্গেই বেশি ঘনিষ্ঠ। কিন্তু নিজের সন্তানের ক্ষেত্রে এমনটা চাই না। যতটা সম্ভব তাদের কাছাকাছি থাকতে চাই।’

২০১৮ ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছবির শুটিং করতে গিয়ে সহ-অভিনেত্রী আলিয়ার প্রতি দুর্বল হয়ে পড়েন রণবীর, যা দ্রুতই প্রেমে রূপ নেয়। রণবীর চেয়েছিলেন, ২০২০ সালেই বিয়ে করতে। কিন্তু কোভিডের কারণে সে পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। অবশেষে তাঁদের শুভ পরিণয় হয় চলতি বছর। এ বছরই মুক্তি পায় সেই ‘ব্রহ্মাস্ত্র’, যে ছবি করতে গিয়ে তাঁরা প্রেমে পড়েন। ছবি সুপারহিট, এরপর প্রথম সন্তানের আগমন—চলতি বছর এর চেয়ে বেশি আর কী চাইতেন আলিয়া-রণবীর?