ফেসবুকে পরীমনির এমন স্ট্যাটাস দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর মিম তাঁর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন। তবে সেই পোস্টে পরীমনি ও রাজ কারোরই নাম নেননি তিনি।

মিম তাঁর ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘“পরাণ” ও “দামাল” সিনেমার আকাশছোঁয়া সাফল্য আমাকে স্বার্থহীন ভালোবাসায় ভাসাচ্ছে। আমি আপ্লুত, অভিভূত। বলতে পারি, জীবনের সেরা সময় পার করছি। ঠিক এই সময়ে একটা পক্ষ আমার পথচলায় ঈর্ষান্বিত হয়ে, আমাকে থামিয়ে দিতে, আমাকে জড়িয়ে নানা ধরনের কুৎসা রটানোর চেষ্টা চালাচ্ছে।’ ধারণা করা হচ্ছে, মিমের সেই স্ট্যাটাসের প্রত্যুত্তর হিসেবে পরীমনি আবারও স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসের একপর্যায়ে তিনি সরাসরি মিমের নামও উল্লেখ করেন।

স্ট্যাটাসে পরীমনি লিখেছেন, ‌‌‘“পরাণ” রিলিজের পর সবখানে আমি বলে আসছি, রাজের সঙ্গে তুমি জুটি হয়ে কাজ করো। তোমাদের জুটি দেখতে ভালো লাগে। এটা তোমরাও চাও।’ পরীমনি জানান, তিনিই পরিচালক আবু রায়হান জুয়েলকে পরামর্শ দিয়েছেন রাজ আর মিমকে জুটি করে তাঁর আগামী ছবির কাজ করতে।

পরীমনির ফেসবুক পোস্টের মন্তব্যের ঘরে মিমের সঙ্গে কথোপকথনের স্ক্রিনশটও দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘দামাল’ চলচ্চিত্রের তিন মাসের হল রাইটস নেওয়ার কারণে মিম–রাজদের পরস্পরের আলাপ তাঁর সংসারজীবনে প্রভাব ফেলেছে। পরীমনির ভাষায়, ‘ব্যবসায়িক ছুতায় আলাপ চলে রাতদিন।’

চলচ্চিত্রের পর্দায় মিমের সঙ্গে শরীফুল রাজের প্রেমের সম্পর্ক সবাই দেখেছেন। ‘পরাণ’ ও ‘দামাল’-এ তাঁদের জুটি দর্শকেরা গ্রহণও করেছেন। পর্দায় এই জুটির সাফল্যের গল্প চলছিল যখন, ঠিক তখনই তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছে বলে অভিযোগ তোলেন পরীমনি।

২০২১ সালের ১৭ অক্টোবর শরীফুল রাজ ও পরীমনি বিয়ে করেছেন। প্রেম হওয়ার ঠিক সাত দিনের মাথায় এমন সিদ্ধান্ত নেন বলে এক সাক্ষাৎকারে পরীমনি জানিয়েছেন। চলতি বছরের ১০ আগস্ট তাঁরা পুত্রসন্তানের জনক-জননী হন।