২০২০ সালের ১৬ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যে মুক্তি পেয়েছে গাল গ্যাদত অভিনীত ছবি ওয়ান্ডার উইমেন ১৯৮৪। যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পেয়েছে আরও ৯ দিন পর, ২৫ ডিসেম্বর। কিন্তু করোনার কারণে বিশাল বাজেটের এই ছবি প্রত্যাশিত ব্যবসা করতে পারেনি। ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা খরচ করে বানানো ছবিটি এখন পর্যন্ত তুলে আনতে পেরেছে মাত্র এক হাজার কোটি টাকা। দর্শকও জানিয়েছেন মিশ্র প্রতিক্রিয়া। রোটেন টমেটো ছবিটিকে দিয়েছে ১০-এ ৬। আর আইএমডিবিতে দশের ভেতর এটি পেয়েছে ৫ দশমিক ৫।

default-image

বড় পর্দার ‘সুপারহিরো ওয়ান্ডার উইমেন’ গাল গ্যাদত ইনস্টাগ্রামে জানিয়েছেন তাঁর ব্যক্তিগত জীবনের ওয়ান্ডার ওম্যান (বিস্ময়কর নারীদের) নাম। সেখানে উঠে এসেছে ভারতীয় নারী বিলকিস বানুর নাম। ২০১৯ সালে ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানায় দেশটির জনগণের একাংশ। সেই সময় দিল্লির শাহীনবাগে নারীদের সঙ্গে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন ৮২ বছরের বিলকিস বানু। কোঁচকানো গায়ের চামড়ায় তাঁর বয়সের ছাপ স্পষ্ট। তীক্ষ্ণ দৃষ্টি। ভিড়ের ভেতরে সহজেই আলাদা করে চোখে পড়ে ‘শাহীনবাগের দাদি’কে। মিডিয়ার কল্যাণে ধীরে ধীরে ভারত আর ভারতের বাইরে ছড়িয়ে পড়ে তাঁর নাম।

default-image
বিজ্ঞাপন

২০২০ সালে টাইম ম্যাগাজিন বিশ্বের যে ১০০ জন প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের নাম প্রকাশ করেছে, তাতে রয়েছে এই বিলকিস বানুর নাম। এবার সেই বিলকিস বানুকে নিজের ‘ব্যক্তিগত ওয়ান্ডার উইমেন’ বলে ইনস্টাগ্রামে তাঁর ছবি পোস্ট করে হলিউড তারকা গাল গ্যাদত লিখেছেন, ‘২০২০–কে বিদায় জানানোর জন্য আমার ব্যক্তিগত জীবনের কয়েকজন বিস্ময়কর নারীর নাম নিতে চাই। এই মানুষগুলো প্রতিনিয়ত আমাকে অনুপ্রাণিত করেন। আমি তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে চাই। সেই তালিকার প্রথম নাম বিলকিস বানু।’ গ্যাদত আরও লিখেছেন, ‘৮২ বছরের এক নারী দেখালেন, প্রতিবাদের কোনো বয়স নেই। ন্যায্য দাবির জন্য লড়াইয়ের কোনো বয়স লাগে না। আপনার চামড়া কুঁচকে যাক, চোখের দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসুক, আপনার প্রতিবাদ চলতে থাকুক।’

default-image

প্রভাবশালী ইসরায়েলি তারকা গাল গ্যাদতের এই তালিকার অন্য দুটো নামের একটি ওয়ান্ডার উইমেন ১৯৮৪ সিনেমার পরিচালক প্যাটি জেনকিনস। অপরটি সদ্য নির্বাচিত মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

default-image
মন্তব্য করুন