default-image

‘ক্যাপ্টেন আমেরিকা: সিভিল ওয়ার’, ‘স্পাইডারম্যান: হোমকামিং’, ‘অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার’, ‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’, ‘স্পাইডারম্যান: ফার ফ্রম হোম’। গত কয়েক বছরে বিশ্বের সবচেয়ে উপার্জনকারী সিনেমার হিসাব করলে সেই তালিকায় থাকবে এই নামগুলো। আর এর প্রতিটি সিনেমার সঙ্গে জড়িয়ে আছে ২৪ বছর বয়সী এক তরুণের নাম। তিনি টম হল্যান্ড। কত কম বয়সে আর কম সময়ে একজন তরুণ কত বড় তারকা হয়ে উঠতে পারেন, তার জ্বলজ্বলে উদাহরণ টম।

বিজ্ঞাপন
default-image

এদিকে বন্ডের ২৫তম সিনেমা নিয়ে বেজায় বিরক্ত ভক্তরা। যতবার তাঁরা আশায় বুক বেঁধেছেন, ততবার পিছিয়েছে ছবিটির মুক্তির তারিখ। বন্ডভক্তরা ‘নো টাইম টু ডাই’–এর আরেক নাম দিয়েছেন ‘মি. লেট’। ছবির শুটিং শুরুর আগেই বড় পর্দার অন্যতম ‘বন্ড...জেমস বন্ড’ ড্যানিয়েল ক্রেগ জানিয়েছিলেন, আর কখনোই বন্ডের স্যুট গায়ে চাপাবেন না তিনি। এই তাঁর শেষ বন্ড হওয়া। এদিকে ‘স্পাইডার-ম্যান’খ্যাত টম হল্যান্ড জানিয়েছেন, বন্ডের স্যুট নাকি তাঁর গায়ে বেশ মানাবে। বন্ড হওয়ার জন্য মুখিয়ে আছেন তিনি। তবে কি এটি কোনো ইশারা? জগতে নাকি শূন্যস্থান বলে কিছু নেই। তাহলে কি ড্যানিয়েল ক্রেইগের শূন্যস্থান পূরণ করবেন টম হল্যান্ড?

default-image

এসব প্রশ্নের উত্তর দেবে সময়। আপাতত ভ্যারাইটিকে টম হল্যান্ড বলেছেন, ‘একটা ব্রিটিশ বালক হিসেবে আমারও বেড়ে ওঠা “জেমস বন্ড” দেখে। আর যে সিনেমা দেখে, সিনেমা করে আর “জেমস বন্ড” হতে চায় না, এ হতেই পারে না। আমি পর্দায় “জেমস বন্ড” করার জন্য পাগল হয়ে আছি। আর স্যুটে কিন্তু আমাকে বেশ মানায়।’

টম আপাতত তৃতীয়বার ‘স্পাইডারম্যান’ হিসেবে দেখা দেওয়ার জন্য ব্যস্ত সময় পার করছেন শুটিং সেটে। ২০২১ আর ২০২২ সালের ক্যালেন্ডারে আপাতত আর কোনো তারিখ ফাঁকা নেই। আগামী দুই বছর চমৎকার সব প্রজেক্টে সময় দিয়ে রেখেছেন এই তরুণ।

বিজ্ঞাপন
হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন