default-image

তবে জীবনের সে ঝড় সামলে ওটিটিতে ঝড় তুলতে যাচ্ছেন তিনি। অন্তত নেটফ্লিক্সের ছবি ‘ব্লন্ড’-এর প্রথম ঝলক দেখার পর সেটাই মনে হয়েছে। ছবিটি তৈরি হয়েছে মেরিলিন মনরোর জীবন অবলম্বনে। মনরোর জীবন নিয়ে ছবি, আলোচনা হতে আর কী চাই। আরমাস অভিনয় করেছেন মনরোর চরিত্রেই। টিজারে আরমাসকে দেখার পর অনেক ভক্তের মুখে একটাই কথা—ঠিক যেন মনরো!

default-image

ওয়েব ছবিটির গল্প সম্পর্কে যতটা জানা গেছে, তাতে বোঝা যাচ্ছে, এতে স্বর্ণযুগের হলিউড ছবির অন্যতম আইকনের প্রায় পুরো জীবনই উঠে আসবে। থাকবে দুঃস্বপ্নের মতো কাটানো শৈশব থেকে তারকা হয়ে ওঠার গল্প। টিজার মুক্তির আগে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আরমাস বলেছিলেন, ‘মনরো কেমন, কেবল সে অভিজ্ঞতাই পুরো দুনিয়াকে বোঝাতে চাই না, চাই নর্মা জিনকেও (মনরোর আসল নাম) চেনাতে। আমরা এক বছর ধরে প্রায় প্রতিদিনই ছবিটির কাজ করেছি।’

default-image

‘ব্লন্ড’ তৈরি হচ্ছে জয়েস ক্যারল ওটসের লেখা একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে। আরমাস জানান, পর্দায় মনরো হয়ে উঠতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছেন তিনি। আরমাস বলেন, ‘আমি জয়েসের উপন্যাস পড়েছি, তাঁর শত শত আলোকচিত্র, ভিডিও ফুটেজ, অডিও রেকর্ড ও সিনেমা দেখেছি। সিনেমার প্রতিটি দৃশ্যই তাঁর কোনো না কোনো আলোকচিত্র প্রেরণায় তৈরি।’ ছবির পরিচালক অ্যান্ড্রু ডোমিনিক। যিনি কয়েক মাস আগে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দর্শকদের সতর্ক করে বলেন, ‘এটি দর্শককে ক্ষুব্ধ করবে।’ ‘ব্লন্ড’ নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাবে চলতি বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর।

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন