জর্জ ক্লুনি
জর্জ ক্লুনিইনস্টাগ্রাম

অভিনেতা ও প্রযোজক হিসেবে দুটি অস্কারজয়ী চলচ্চিত্র তারকা জর্জ ক্লুনি। লকডাউনে তিনি পুরোদস্তুর ‘পারিবারিক’ বনে গেছেন৷ ‘আমি চুল নিজেই কেটেছি। শুধু তা–ই নয়, বাচ্চাদের চুলও আমি কেটে দিয়েছি। ঘর ঝাড়ু দিয়েছি, মুছেছি। কাপড় কেচেছি। সেগুলো ইস্ত্রি করেছি। আর প্রতিদিন খাওয়াদাওয়া শেষে থালাবাটি মেজেছি।’

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী জিকিউকে এক অনলাইন সাক্ষাৎকারে এভাবেই বললেন সাইরিয়ানা, অ্যানি, গ্র্যাভিটি, মানি মনস্টার তারকা। জর্জ ক্লুনি আরও বলেন, ‘নিজেকে আমার আর কোনো হলিউড তারকা মনে হচ্ছে না। মনে হচ্ছে ১৯৬৪ সালে আমার মা যেমন ছিলেন, আমি যেন তাই।’

default-image
বিজ্ঞাপন

আইনজীবী স্ত্রী আমাল ক্লুনি আর তিন বছরের যমজ দুই সন্তান আলেক্সান্ডার আর এলাকে নিয়ে জর্জের সংসার। লকডাউনে এক ছাদের নিচে দীর্ঘ সময় একসঙ্গে কাটিয়েছেন এই চারজন। অবশ্য সময়টা যে দারুণ কেটেছে, সে কথাও স্বীকার করে নিলেন ৫৯ বছর বয়সী এ অভিনেতা। ১৯৯৩ সালে প্রথম স্ত্রী তালিয়া বালসামের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর দীর্ঘ সময় একা থেকেছেন এ অভিনেতা। তিনি বলেন, ‘২৫ বছর আগের আমি আর আজকের আমিতে ঢের তফাত। তখন আমি ভাবতাম, এই জীবনে আমি আর বিয়ে করব না। আমি মন দিয়ে ভালো ভালো সিনেমা করব। আমার কিছু বন্ধু থাকবে, এই তো। জীবন পরিপূর্ণ। ব্যস, আর কী লাগে এই জীবনে!’

default-image

‘এরপর পেরিয়ে গেল দুই দশক। একদিন আমালের সঙ্গে দেখা হলো। মনে হলো, আমার জীবন যা ছিল সব অর্থহীন। এই নারীই আমার জীবনকে পূর্ণতা দিতে পারে। একটি বাচ্চা রাতের বেলা বিছানা ভিজিয়ে তারস্বরে কাঁদছে—এটা আমার কল্পনারও বাইরে ছিল। আর এখন আমি প্রতিদিন এমনই দুটি বাচ্চাকে নিয়ে ঘুমাই। আর ভাবি, কী অদ্ভুত! এদের আমি নিজের জীবনের চেয়ে বেশি ভালোবাসি। জীবনে এমন উপহার পাওয়ার চেয়ে বড় আর কী আছে?’

২৩ ডিসেম্বর মুক্তি পাবে দ্য মিডনাইট স্কাই। লকডাউনে ওপরের সবকিছু ছাড়াও এই ছবিটির সম্পাদনা করেছেন জর্জ। শুধু তা–ই নয়, সায়েন্স ফিকশন এই ছবির পরিচালনা, প্রযোজনা ও মুখ্য চরিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0