default-image

সম্পর্কের উত্থান-পতান লোপেজও কম দেখেননি। ১৯৯৭ সালে ওজানি নোয়া, ২০০১ সালে ক্রিস জাড ও ২০০৪ সালে মার্ক অ্যান্থনিকে বিয়ে করেন লোপেজ। এ ছাড়া ২০১৭ থেকে ২০২১ পর্যন্ত বাস্কেটবল খেলোয়াড় অ্যালেক্স রড্রিগেজের সঙ্গে প্রেম ছিল এই গায়িকা-অভিনেত্রীর। ২০১৯ সালে তাঁদের বাগদানও হয়। এ ছাড়া তৃতীয় স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০১১ সাল থেকে ব্যাকআপ ড্যান্সার কাসপার স্মার্টের সঙ্গে প্রেম করেন তিনি।

default-image

সম্পর্কের ক্ষেত্রে এত ভাঙাগড়া দেখে বিয়ের আগে দুজনই বেশ সতর্ক। স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা জানিয়েছে, নতুন করে সম্পর্কে জড়ানোর আগে ৫০ লাখ ডলারের (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৫১ কোটি টাকার বেশি) ‘প্রতারণাবিরোধী’ চুক্তি করেছেন বেন ও জেলো। এখন কেউ যদি প্রতারণা করেন, তবে ৫০ লাখ ডলার জরিমানা গুনতে হবে। এই অর্থ অর্থ পেতে তাঁদের আদালতেও যেতে হবে না। নিজেরাই আলাপ–আলোচনার মাধ্যমে চুক্তির শর্ত ঠিক করেছেন বেন ও জেলো। চুক্তি ভাঙলে আর্থিক ক্ষতির পরিমাণও তাঁদেরই ঠিক করা। এত বড় অঙ্কের জরিমানার বিধান রেখেছেন যাতে সম্পর্ক ভাঙার চিন্তা করলে আগে এই অর্থদণ্ডের কথা মাথায় আসে।

default-image

লোপেজের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, অভিনেত্রী সম্পর্ক ধরে রাখতে চান, বিয়ের কয়েক সপ্তাহ পরই বিচ্ছেদে জড়াতে চান না। আশপাশের মানুষ তাঁদের নিয়ে যেসব গুজব রটান, তা নিয়ে তিনি সচেতন। ‘প্রতারণাবিরোধী’ চুক্তি নিয়ে অবশ্য বেন অ্যাফ্লেক বা জেনিফার লোপেজের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন