পোস্ট করা ছবিতে শোলাঙ্কিকে দেখা যায় জিনসের সঙ্গে ধূসর রঙের টপ পরা অবস্থায়, ফলে নাভির ওপর তাঁর দাগগুলো স্পষ্ট হয়ে দেখা যায়। ছবিটি পোস্ট করে অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘প্রিয়তম অলংকারের মতোই দাগগুলো শরীরে জড়িয়ে রাখি। এটা আমাকে আমার গভীর ক্ষতের কথা মনে করিয়ে দেয়, যার সঙ্গে তীব্র লড়াই করে বেঁচে গেছি আমি। সবই ঘটে কোনো না কোনো কারণে, সব মিলিয়ে আমি নিজের মতো হয়ে উঠি।’

শোলাঙ্কির এই পোস্টের পর তাঁর অনুসারীরা ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। অনেকেই তাঁর সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন, কেউ কেউ শুভকামনা জানিয়েছেন ভবিষ্যতের জন্য। কেউ আবার অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে দাগ মিশিয়ে ফেলার পরামর্শও দিয়েছেন। তবে শোলাঙ্কি জানিয়েছেন, তিনি দাগ মুছতে চান না; রেখে দিতে চান লড়াইয়ের চিহ্ন হিসেবে।

অনেকেই জানতে চেয়েছেন দাগের কারণ কী! লড়াই বলতে তিনি ঠিক কী বোঝাতে চেয়েছেন? সেটাও খোলাসা করেছেন শোলাঙ্কি রায়। জানিয়েছেন, কলেজে পড়ার সময় একবার তাঁর শরীরের কিছু অংশ পুড়ে গিয়েছিল, দাগগুলো শরীরে চিহ্ন রেখে গেছে।
শোলাঙ্কি আরও জানিয়েছেন, তাঁর শরীর নিয়ে কোনো ছুৎমার্গ নেই। কেউই পরিপূর্ণ নয়, তাই শরীরের দাগ নিয়েও কোনো সমস্যা নেই তাঁর। তবে অভিনয়ের প্রয়োজনে কখনো দাগ ঢাকার যদি দরকার হয়, সে জন্য মেকআপ তো রয়েছেই।