default-image

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রেমঘটিত সমস্যায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন দীপা। সেই হতাশা থেকেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন। এ ঘটনায় পুলিশ একটি মামলা করেছে। আর ঘটনাটি এখন তদন্তনাধীন। এই অভিনেত্রী বেশ কয়েক দিন ধরেই চেন্নাইয়ের মাল্লিকাই অ্যাভিনিউয়ের বাড়িতে একা ছিলেন। এরপর দীর্ঘ সময় তাঁকে ফোনে না পেয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন তাঁর পরিবারের সদস্যেরা। খুঁজতে এলে তাঁর ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান। এরপর পুলিশ এসে বাড়ি থেকে এ অভিনেত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে।

default-image

দীপার লেখা একটি ডায়েরিও জব্দ করেছে পুলিশ। ডায়েরিতে লেখা ছিল, তিনি জীবন পছন্দ করেন না, কারণ তাঁকে সমর্থন করার মতো কেউ নেই। নোটটিতে আরও লেখা আছে যে তিনি এমন একজনের প্রেমে পড়েছেন, যিনি তাঁর প্রেমকে গ্রহণ করেননি এবং তাই তিনি তাঁর জীবন শেষ করতে চলেছেন। অভিনেত্রীর মৃত্যুর কারণ খুঁজতে পুলিশ কর্মকর্তারা দীপার প্রেমিকের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। কয়েক দিন আগে গীতিকার কাবিলানের মেয়ে থুরিগাই আত্মহত্যা করেন। তদন্তে জানা যায়, বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছিল। ওই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই দীপার মৃত্যুর খবর এল।

default-image

বেশ কিছু দক্ষিণি সিনেমায় অভিনয় করেছেন দীপা। অভিনয়ের মাধ্যমে দক্ষিণি ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের অবস্থান করে নিয়েছিলেন তিনি। তামিল ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর ভালো জায়গায় যাওয়ার সম্ভবনা ছিল বলে মনে করেন অনেকে। সেখানে তিনি জেসিকা নামে পরিচিতি পেয়েছিলেন। সম্প্রতি তামিল ভাষার ‘ভাইথা’ সিনেমায় প্রধান চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিতও হন এ অভিনেত্রী।

বিশ্ব চলচ্চিত্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন