ক্যামডেন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ফ্রান্স, নরওয়ে, সুইজারল্যান্ড এবং আর্মেনিয়ার চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়। উৎসবে মেইনের রকল্যান্ডে অবস্থিত জার্নিস অ্যান্ড থিয়েটারে ‘অন্যদিন…’–এর প্রদর্শনী হয়। উৎসবে অংশ নেওয়া স্বনামধন্য চলচ্চিত্র সমালোচক এরিক হাইনস বিচারকদের পক্ষ থেকে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন, ‘এই ছবিকে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেওয়ার ব্যাপারে আমরা বিচারকেরা সবাই একমত ছিলাম। একটা পুরো সমাজের শক্তিশালী ও চমৎকার পর্যবেক্ষণ রয়েছে এই ছবিতে।’

default-image

বাংলাদেশ, ফ্রান্স ও নরওয়ের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে ‘অন্যদিন...’। ‘অন্যদিন...’ একটা পুরোপুরি হাইব্রিড ছবি। এটা শতভাগ ফিকশন ও শতভাগ নন-ফিকশন ছবি। ছবির গল্প প্রসঙ্গে নির্মাতা বলেছিলেন, এটি লাইভ সেটে গ্রুমিং করা একদল নন-অ্যাক্টর নিয়ে সত্যিকারের কিছু ঘটনার সঙ্গে স্ক্রিপ্টেড সিকোয়েন্স শুটিং করা ছবি। তিনি এটিকে ‘হাইব্রিড ফিকশন ব্লেন্ডেড উইথ রিয়েলিটি’ বা ‘সত্য গল্প’ বলে আখ্যা দিয়েছেন।

২৯ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৯ অক্টোবর কানাডার ভ্যানকুভার আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবেও নির্বাচিত হয়েছে ‘অন্যদিন...’। কানাডার ভ্যানকুভার আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ঘোষণার এক দিন পর আরেকটা ঘোষণা হয়। তাই একটা মধুর সমস্যায় পড়তে হয় কামার আহমাদ সাইমনকে। তিনি জানান, ইউরোপের অন্যতম প্রধান চলচ্চিত্র উৎসব জুরিখ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এ বছর সেরা ছবির বিভাগে গোল্ডেন আই পুরস্কারের জন্য লড়বে ‘অন্যদিন...’।

২২ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে এ উৎসব চলবে ২ অক্টোবর পর্যন্ত। ইচ্ছা থাকলেও তাই যুক্তরাষ্ট্রের পর কানাডা না গিয়ে সুইজারল্যান্ডে যেতে হচ্ছে। এটাই মধুর সমস্যা। উৎসব শেষে ৪ অক্টোবর দেশে ফিরবেন তিনি।
গত নভেম্বরে ইন্টারন্যাশনাল ডকুমেন্টারি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল আমস্টারডামে (ইডফা) প্রতিযোগিতা করেছিল ‘অন্যদিন...’। সেখানে বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরতম থিয়েটার বলে পরিচিত তুসান্সকিতে ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয় ছবিটির।

বিশ্ব চলচ্চিত্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন