default-image

ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবের সিনেমাগুলো নিয়ে বিশ্ব চলচ্চিত্র বোদ্ধা, চলচ্চিত্রপ্রেমীদের আলাদা নজর থাকে। প্রতিবছর নির্বাচিত সিনেমা বাছাইয়ে থাকে আলাদা নজর। এবারও সেই ছাপ রয়েছে। মূল বিভাগের প্রতিযোগিতায় রয়েছেন বিশ্বের খ্যাতিমান নির্মাতারা। ‘মাদার’ সিনেমার পর পাঁচ বছর বিরতি দিয়ে ড্যারেন অ্যারোনোফস্কি ফিরছেন ‘দ্য হুইল’ সিনেমা নিয়ে। দীর্ঘ প্রায় এক দশক পর অ্যান্ড্রু ডমিনিক ফিরছেন নতুন সিনেমা ‘ব্লন্ডি’ দিয়ে। ২০১৫ সালে ‘রেভেন্যান্ট’ সিনেমা দিয়ে অস্কার জয়ের পর আর কোনো সিনেমা বানাননি আলেজান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু। ‘রেভেন্যান্ট’ সিনেমাটি দিয়ে ইনারিতু জিতে নেন পরিচালক বিভাগে অস্কার। সিনেমার অভিনেতা ডিক্যাপ্রিও ক্যারিয়ারে প্রথমবার অভিনয়ের জন্য যোগ হয় সেরা অভিনেতা হিসেবে অস্কার পুরস্কার। মেক্সিকান এই চলচ্চিত্র নির্মাতা এবার ‘বারডো’ দিয়ে পর্দায় ফিরছেন। ভেনিসের এই তালিকায় আরও রয়েছেন লুকা গোওডাগিনো, জোয়ানা হগ ও লরা পোইট্রাসের মতো পরিচালকেরা। বোঝাই যায়, এবার প্রতিযোগিতা বিভাগে সেয়ানে সেয়ানে টক্কর হবে।

default-image

৭৯তম এই চলচ্চিত্র উৎসবে আউট অব কমপিটিশন ফিকশন ও নন–ফিকশন বিভাগে জায়গা করে নিয়েছে ১০টি করে সিনেমা। এ ছাড়া হরাইজনস শাখায় ছয়টি সিনেমা মনোনয়ন পেয়েছে। আরও রয়েছে হরাইজন এক্সট্রা বিভাগে ৯টি সিনেমা, ১২টি তথ্যচিত্র, আউট অব কমপিটিশন সিরিজ বিভাগে ২টি ৬ পর্বের সিরিজ। গত বছর ৭৮তম ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা ছবির পুরস্কার স্বর্ণসিংহ জিতেছিল ফরাসি ছবি ‘হ্যাপেনিং’। এটি পরিচালনা করেছিলেন ফরাসি পরিচালক ওদগে দিওয়ান। আগামী ৩১ আগস্ট শুরু হয়ে ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে এবারের উৎসব। এবারের উৎসবের সমাপনী সিনেমা ‘আদার পিপলস চিলড্রেন’। এটি পরিচালনা করেছেন রেবেকা জোটলস্কি।

default-image

একনজরে প্রতিযোগিতা বিভাগের সিনেমাগুলো
‘হোয়াইট নয়েজ’ (উদ্বোধনী সিনেমা), পরিচালক: নোয়া বামবাচ (যুক্তরাষ্ট্র)
‘আই সাইনোর ডেল ফরমিস’, পরিচালক: গিয়ান্নি অ্যামিলিয়ো (ইতালি)
‘দ্য হুইল’, পরিচালক: ড্যারেন অ্যারোনোফস্কি (যুক্তরাষ্ট্র)
‘ল’ইমেনসিতা’, পরিচালক: ইমানুয়েল ক্রিয়েলিস (ইতালি)
‘সেইন্ট ওমের’, পরিচালক: এলিস ডিওপ (ফ্রান্স)
‘ব্লন্ডি’, পরিচালক: অ্যান্ড্র ডমিনিক (যুক্তরাষ্ট্র)
‘টিএআর’, পরিচালক: টড ফিল্ড (যুক্তরাষ্ট্র)
‘লাভ লাইফ’, পরিচালক: ফজি ফুকাদা (জাপান)
‘বারডো’, পরিচালক: আলেজান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু (মেক্সিকো)
‘এথেনা’, পরিচালক: রমেন গ্যাভরেস (ফ্রান্স)
‘বনস অ্যান্ড অল’, পরিচালক: লুকা গোওডাগিনো (যুক্তরাষ্ট্র)
‘দ্য ইটারন্যাল ডটার’, পরিচালক: জোনানা হগ (যুক্তরাজ্য)
‘বিয়ন্ড দ্য ওয়াল’, পরিচালক: ভাহিদ জালিলভ্যান্ড (ইরান)
‘দ্য বানশি অব হনিশেরিন’, পরিচালক: মার্টিন ম্যাকডোনাগ (যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য)
‘আর্জেন্টিনা, ১৯৮৫’, পরিচালক: সান্তিয়াগো মিতার (আর্জেন্টিনা ও যুক্তরাষ্ট্র)
‘চিয়ারা’, পরিচালক: সুজানা নিচিয়ারেলি (ইতালি)
‘মনিকা’, পরিচালক: আন্ড্রে পালারো (ইতালি)
‘নো বেয়ারস’, পরিচালক: জাফর পানাহি (ইরান)
‘অল দ্য বিউটি অ্যান্ড দ্য ব্লাডশিড’ (সমাপনী), পরিচালক: লরা পোইট্রাস (যুক্তরাষ্ট্র)
‘অ্যা ক্যাপল’, পরিচালক: ফ্রেডরিক উইজম্যান (যুক্তরাষ্ট্র)
‘দ্য সন’, পরিচালক: ফ্লোরিয়ান জিলার (যুক্তরাষ্ট্র)
‘আওয়ার টাইস’, পরিচালক: রোশডি জেম (ফ্রান্স)
‘আদার পিপলস চিল্ড্রেন’, পরিচালক: রেবেকা জোটলস্কি (ফ্রান্স)

default-image
বিশ্ব চলচ্চিত্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন