default-image

১৯৬৯ সালের চন্দ্রজয় অভিযানের তিন সদস্যের একজন মাইকেল কলিন্স আর নেই। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার অ্যাপোলো-১১ অভিযান নিয়ে আছে নানান গল্প। শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হন নিল আর্মস্ট্রং, বাজ অলড্রিন ও মাইকেল কলিন্স। এটা তো সবাই জানেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে ১৯৬৯ সালের ১৬ জুলাই মনুষ্যবাহী মহাকাশযান উৎক্ষেপণের মাধ্যমে শুরু হয় নাসার অ্যাপোলো-১১ অভিযানের চূড়ান্ত পর্ব।

default-image

২০ জুলাই চাঁদের বুকে পা রেখে ইতিহাস গড়েন নিল আর্মস্ট্রং। কিছুক্ষণ পরে চাঁদের বুকে দ্বিতীয় মানব হিসেবে পা রাখেন বাজ অলড্রিন। সে সময় চাঁদের চারপাশ ঘিরে কক্ষপথে মূল মহাকাশযান কমান্ড মডিউল কলাম্বিয়া নিয়ে একা চক্কর দিচ্ছিলেন মাইকেল কলিন্স। ১৯৫ ঘণ্টা, ১৮ মিনিট এবং ৩৫ সেকেন্ড মহাকাশে কাটিয়ে ২৪ জুলাই পৃথিবীতে ফিরে আসেন তাঁরা।

default-image

ইতিহাসে তো এমনিতেই নাম উঠে গিয়েছিল, তারপর আরেক অদ্ভুত ঘটনা ঘটিয়ে অন্য রকম এক ইতিহাসে নাম লেখান মাইকেল কলিন্স। আট দিনের চন্দ্রজয় অভিযানের জন্য নাসা তিনজন মহাকাশচারীকে পাঠালেও দুজন মাত্র চাঁদে হেঁটেছেন। মাইকেল কলিন্স সে সময় সামলাচ্ছিলেন মহাকাশযান কমান্ড মডিউল কলাম্বিয়া। নিল আর্মস্ট্রং ও বাজ অলড্রিন ততক্ষণে চাঁদের বুকে পা রেখেছেন। পরদিন অর্থাৎ ২১ জুলাই চাঁদের বুকে আবার নামে ‘ইগল’ নামের লুনার মডিউলটি। যেটিতে ছিলেন নিল আর্মস্ট্রং ও বাজ অলড্রিন। ঘড়িতে তখন ৫টা বেজে ৩৪ মিনিট (ইডিটি)। চাঁদের পৃষ্ঠ থেকে দিনের অভিযান গুটিয়ে কলাম্বিয়ায় ফিরে আসছিল ‘ইগল’। কলাম্বিয়া থেকে সেটি তখন মাত্র ৪ মিটার দূরে, ঠিক সেই মুহূর্তে দিগন্তে ‘আধখানা’ পৃথিবীকে রেখে ‘ইগলের’ ছবি তোলেন কলাম্বিয়ার পাইলট মাইকেল কলিন্স। ব্যস, এই এক ছবিতে দুনিয়ার সব মানুষ এঁটে গেল। বাদ রইল কে? আর কেউ নন, স্বয়ং মাইকেল কলিন্স। আর এই ছবিই এখন পর্যন্ত একমাত্র, যেখানে দুনিয়ার একজন বাদে বাকি সব মানুষ এক ফ্রেমে বন্দী!

default-image

পৃথিবীর অন্যতম দুঃসাহসিক অভিযানের নায়ক মাইকেল কলিন্স ক্যানসারের সঙ্গে বসবাস করছিলেন বেশ কয়েক বছর ধরে। অবশেষে চলে গেলেন গতকাল এপ্রিলের ২৮ তারিখে। বয়স হয়েছিল তাঁর ৯০। টুইটারে মাইকেল কলিন্সের অফিশিয়াল অ্যাকাউন্টে এক বিবৃতিতে কলিন্সের পরিবার বলেছে, ‘মাইক সব সময়ই নম্রতা আর কমনীয়তার সঙ্গে জীবনের চ্যালেঞ্জগুলো গ্রহণ করেছেন। তিনি একইভাবে তাঁর জীবনের শেষ চ্যালেঞ্জটিও গ্রহণ করেছেন।’

বিজ্ঞাপন
একটু থামুন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন