মন্ডুকাসন

যেভাবে করবেন: পায়ের বৃদ্ধাঙ্গুল দুটি পরস্পর স্পর্শ করে বজ্রাসনে বসুন। বাঁ হাতের বৃদ্ধাঙ্গুল ভেতরের দিকে রেখে হাত মুষ্টি করুন। এবার মুষ্টি দুটির সামনের অংশ পরস্পরের সঙ্গে স্পর্শ করুন। এবার মুষ্টির ভেতরের দিক (বৃদ্ধাঙ্গুল যে দিকে) নাভি বরাবর স্পর্শ করান। এখন দম ছাড়তে ছাড়তে সামনের দিকে ঝুঁকুন। আসনে থাকা অবস্থায় শ্বাসপ্রশ্বাস ছোট ছোট করে খুব ধীরে ধীরে টানবেন ও ছাড়বেন। আসন থেকে ওঠার সময় দম নিতে নিতে উঠবেন।

সময়কাল: প্রাথমিক অবস্থায় ১০ সেকেন্ড দিয়ে শুরু করুন। আস্তে আস্তে সময় বাড়িয়ে ৩০ সেকেন্ড থাকার চেষ্টা করুন। এভাবে ৪-৫ বার করুন।

উপকারিতা: পেটের চর্বি বার্ন করতে সাহায্য করে। ডায়াবেটিসের সমস্যা সমাধানে উপকারি। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর করে।

উত্থানপাদাসন

যেভাবে করবেন: চিত হয়ে টান টান করে শুয়ে পড়ুন। হাত শরীরের সমান্তরালে ম্যাটের ওপর রাখুন। দম নিতে নিতে পা দুটো একসঙ্গে ৩০০ ডিগ্রি উচ্চতায় তুলুন। এ অবস্থায় পেট একটু টেনে রাখবেন, নাহলে চাপ কোমরে পড়বে। ১৫-৩০ সেকেন্ডের মতো এভাবে থেকে আস্তে আস্তে পা নামিয়ে নিন। পা নামানোর সময় শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে নামাবেন। এভাবে ৪০০, ৫০০ করে ৯০০ ডিগ্রি পর্যন্ত করতে পারেন।

সময়কাল: শুরুতে প্রত্যেক ধাপে ১০ সেকেন্ড সময় নিন। আস্তে আস্তে সময় বাড়ান।

উপকারিতা: তলপেট ও ওপরের পেটের ফ্যাট বার্ন করার জন্য খুব কার্যকর আসন।

মনে রাখুন

আপনার পেট বা ভুঁড়ি এক দিনে বা এক মাসে বাড়েনি। বছরের পর বছর অনিয়ম করার ফলে পেটে ভুঁড়ি হয়েছে। সেটা কমানোর জন্য তাড়াহুড়া করবেন না। স্বাস্থ্যকর পদ্ধতিতে যোগাভ্যাসের মাধ্যমে এটা দূর করতে প্রতিদিন অনুশীলন করে যেতে হবে। দেহের শক্তির প্রয়োজনে যেমন প্রতিদিন আমরা খাবার খাই, সেভাবে দেহের গঠন সুন্দর করার জন্য প্রতিদিন যোগাভ্যাস প্রয়োজন। যোগব্যায়ামে পেট কমতে কারও এক মাস, কারও তিন মাস কিংবা এক বছরও লাগতে পারে। কিন্তু অধৈর্য হয়ে অভ্যাস বন্ধ করা যাবে না।