বেলা পৌনে একটার দিকে সরেজমিনে দেখা যায়, আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকার আদলে বড় আকৃতির মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। মূলমঞ্চে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা অবস্থান করছেন।

এদিকে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে সম্মেলনস্থলে দলের নেতা–কর্মীরাও আসা শুরু করেছেন। তবে রোদের কারণে মঞ্চের সামনে বসানো চেয়ারে না বসে তাঁরা মঞ্চের দক্ষিণ পাশে গাছের ছায়ার নিচে অবস্থান নিয়েছেন।

এ সম্মেলনকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সম্মেলনের চারপাশ ছাড়াও মঞ্চের দক্ষিণ পাশে একটি নিয়ন্ত্রণকক্ষ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে পুলিশের সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন।

এ সম্মেলনকে কেন্দ্র করে নারী ও পুরুষের জন্য আলাদা শৌচাগার তৈরি করা হয়েছে। এ ছাড়া মূলমঞ্চের সামনে আরেকটি ছোট মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপস্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন আয়োজকেরা।

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সংসদ সদস্য কামরুল ইসলাম। প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এতে প্রধান বক্তার বক্তব্য দেবেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম। বিশেষ বক্তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। আর সম্মেলনের সভাপতিত্ব করবেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজীর আহমদ। সঞ্চালনায় থাকবেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান।