এ দুজনের বদলে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের সময়ই দলে ডেকে পাঠানো হয়েছিল অলরাউন্ডার টনি মুনিয়োঙ্গা ও পেসার টানাকা চিভাঙ্গাকে। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের দলে জায়গা ধরে রেখেছেন দুজনই। শক্তিমত্তা বাড়াতে ডেকে পাঠানো হয়েছে আরেক পেসার ভিক্টর নিয়াউচিকেও।

default-image

চাতারা-মুজারাবানি শেষ পর্যন্ত না খেললেও নেদারল্যান্ডসকে ফাইনালে হারিয়ে বাছাইপর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জিম্বাবুয়ে। ফাইনালে উঠেই অবশ্য অস্ট্রেলিয়ায় হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা নিশ্চিত করেছে দলটি। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের দলে নিয়াউচির দলে আসা ছাড়া আর কোনো পরিবর্তন নেই।

আগামী ৩০ জুলাই হারারে স্পোর্টস ক্লাবে হবে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি। পরের দুটি ম্যাচও একই ভেন্যুতে, ৩১ জুলাই ও ২ আগস্ট। ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টায়। টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর দুই দল খেলবে তিনটি ওয়ানডে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড

রায়ান বার্ল, রেজিস চাকাভা, চিভাঙ্গা টানাকা, ক্রেইগ আরভিন (অধিনায়ক), লুক জঙ্গোয়ে, ইনোসেন্ট কাইয়া, ওয়েসলি মাদহেভেরে, তাদিওয়ানাশে মারুমানি, ওয়েলিংটন মাসাদাকাদজা, টনি মুনিওঙ্গা, রিচার্ড এনগারাভা, ভিক্টর নিয়াউচি, সিকান্দার রাজা, মিল্টন শুম্বা, শন উইলিয়ামস।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন