default-image

তবে আইসিসির ভবিষ্যৎ সফর পরিকল্পনা থেকে বিসিবির বড় অর্জন বিপিএলের জন্য নির্দিষ্ট সময় নিশ্চিত করতে পারা। এ ব্যাপারে এক বিসিবি কর্মকর্তা বলেছেন, ‘এটা আমাদের জন্য অনেক বড় ব্যাপার ছিল। কারণ, আগামী চার বছর প্রায় একই সময় বিপিএল আয়োজন করতে পারব। আর এই সময় আমাদের কোনো বড় সিরিজও থাকছে না। যদি বড় কোনো দল এই সময় খেলতে চাইত, তাহলে সমস্যা হতো।’

কদিন আগে বিসিবির বোর্ড সভা শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান আগামী তিন বিপিএলের সময়সূচিও জানিয়ে দিয়েছেন। সব ঠিক থাকলে ২০২৩ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে বিপিএলের নবম আসর, শেষ হবে ১৬ ফেব্রুয়ারি। পরের বছর ৬ জানুয়ারি শুরু হয়ে বিপিএলের দশম আসর চলবে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ২০২৫ সালের বিপিএল হবে ১ জানুয়ারি থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

তবে নতুন এফটিপিতে কী আছে, সেটি আনুষ্ঠানিকভাবে জানা যাবে আইসিসির বার্ষিক সাধারণ সভার পর। ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে ২৫ ও ২৬ জুলাই আইসিসির সভায় নতুন এফটিপি অনুমোদন পাওয়ার কথা। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান এর মধ্যেই সে সভায় অংশ নিতে ইংল্যান্ডে গেছেন। বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরীরও তাতে যোগ দেওয়ার কথা।

আজ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলছিলেন, ‘এবারের সভায় যে বিষয়গুলো এসেছে, তার বেশির ভাগই আমরা আগে আলোচনা করেছি। এগুলোর সিদ্ধান্ত আগেই হয়ে আছে। ইতিমধ্যে আপনারা কিছু তথ্য পেয়েছেন বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের বরাতে। কিন্তু মূল বিষয় হলো এই সভার আলোচ্যসূচিতে এফটিপি আছে, ইভেন্ট অ্যালোকেশন আছে। রুটিন বিষয়গুলোই মূলত আসছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন