তবে বাংলাদেশ দল যখন এমন একটি সিরিজ খেলতে যাচ্ছে, তখন বিশ্ব ক্রিকেটে ওয়ানডে ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ নিয়েই প্রশ্ন উঠে গেছে। ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগ ক্রিকেট ক্যালেন্ডারের অনেকটা সময় কেড়ে নেওয়ায় দ্বিপক্ষীয় ওয়ানডে সিরিজ গুরুত্ব হারাচ্ছে বলে মনে করছেন অনেকেই।

বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের মত অবশ্য সম্পূর্ণ ভিন্ন। আজ হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে সিরিজ–পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এ প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তামিম বলেছেন, ‘আমি মনে করি, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ সংস্করণ। আমি তো বলছিই, আইসিসিও নিশ্চয়ই বলেছে। এই সংস্করণের খেলাটাই সবাই দেখতে পছন্দ করে।’

default-image

বিশ্বকাপের দিক থেকেও ওয়ানডে বিশ্বকাপকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চেয়ে এগিয়ে রাখছেন তামিম, ‘আপনি যদি আইসিসির বড় টুর্নামেন্টগুলো দেখেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ কিন্তু বড় টুর্নামেন্ট নয়। বড় টুর্নামেন্ট ওয়ানডে বিশ্বকাপই। এটা ক্রিকেটের খুবই গুরুত্বপূর্ণ এক সংস্করণ।’

বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত আইসিসি সুপার লিগের অন্যতম ধারাবাহিক দল। ১৮ ম্যাচ খেলে ১২টিতেই জিতে বাংলাদেশের পয়েন্ট ১২০। সুপার লিগের পয়েন্ট তালিকায় তামিমদের অবস্থান দ্বিতীয়তে। ভারতে অনুষ্ঠেয় ২০২৩ বিশ্বকাপের টিকিট এর মধ্যেই নিশ্চিত করে ফেলেছে বাংলাদেশ।

default-image

সুপার লিগে বাংলাদেশের আরও দুটি সিরিজ বাকি আছে। আগামী বছর ইংল্যান্ড দল বাংলাদেশ সফর করবে সুপার লিগের তিনটি ম্যাচ খেলতে। চলমান চক্রে বাংলাদেশের সর্বশেষ সিরিজ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। সেটিও আগামী বছর আয়ারল্যান্ডের মাঠে।

বাংলাদেশ যেখানে সুপার লিগে দাপুটে অবস্থান ধরে রাখছে, তখন দক্ষিণ আফ্রিকা সুপার লিগকে একরকম বুড়ো আঙুলই দেখিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ বাতিল করে দিয়ে।

নিজেদের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য আগামী বছরের শুরুতে অনুষ্ঠেয় ওয়ানডে সিরিজটি তারা খেলবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর সেটি দক্ষিণ আফ্রিকার ২০২৩ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন