এবারের টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মোট প্রাইজমানি ছিল ৫৬ লাখ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৫৭ কোটি টাকার বেশি। আইসিসি জানিয়েছে, ২০২২ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ১৬ লাখ মার্কিন ডলার পেয়েছে ইংল্যান্ড, বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১৬ কোটি টাকার বেশি। ফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ৫ উইকেটে হেরে যাওয়া পাকিস্তান পেয়েছে ইংল্যান্ডের অর্ধেক—বাংলাদেশি মুদ্রায় ৮ কোটি টাকার বেশি।

ইংল্যান্ড, পাকিস্তান সেমিফাইনালে যাদের হারিয়েছিল, সেই ভারত আর নিউজিল্যান্ড পেয়েছে ৪ লাখ ডলার করে। এর আগে বাংলাদেশসহ যে ৮টি দল সুপার টুয়েলভ থেকে বিদায় নিয়েছে, তারা পেয়েছে ৭০ হাজার ডলার করে।

এ ছাড়া সুপার টুয়েলভে প্রতিটি জয়ের জন্য বরাদ্দ ছিল ৪০ হাজার ডলার করে। যার অর্থ—সুপার টুয়েলভ পর্বে দুটি জয় আর টুর্নামেন্টে অবস্থান মিলিয়ে মোট ১ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার পেয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১ কোটি ৫২ লাখ টাকার বেশি।

প্রথম রাউন্ড থেকে বাদ পড়া ৪ দল সংযুক্ত আরব আমিরাত, স্কটল্যান্ড, নামিবিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেয়েছে ৪০ হাজার ডলার করে। এই পর্বের প্রতি জয়ের জন্যও ছিল বাড়তি ৪০ হাজার ডলার।