কিন্তু পাকিস্তানকে শুধু শেষ দুটি ম্যাচ জিতলেই হবে না, অন্যদের দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে। এর মধ্যে বাংলাদেশ, ভারত ও জিম্বাবুয়ে কেউই যেন তাদের শেষ দুটি ম্যাচ না জিততে পারে; বাংলাদেশ ও ভারত একটি ম্যাচ জিতলেও যেন রান রেট কম থাকে, এমন সব সমীকরণ পাকিস্তানের সামনে।

এ ছাড়া বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যে দুটি ম্যাচ বাকি আছে, সেখানেও জিততে হবে বড় ব্যবধানে। সব মিলিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ভারতের হার পাকিস্তানকে খাদের কিনারায় ঠেলে দিয়েছে।

পার্থে কোহলি-রোহিতরা দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই সমীকরণটা জানত পাকিস্তান। যে কারণে ভারত ম্যাচে গভীর দৃষ্টি ছিল পাকিস্তানের। টস জিতে ব্যাট করতে নামা ভারত ৪১ রানেই হারিয়ে ফেলে কোহলি-রোহিতসহ ৪ ব্যাটসম্যানকে।

পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার শোয়েব আখতার তখন টুইটার লাইভে এসে হা-হুতাশ শুরু করেন। লাইভে তিনি বলেছেন, ‘আমি বলেছিলাম পাকিস্তানের জন্য ভারতের জেতা উচিত। তারা তো পাকিস্তানকে শেষ করে দিচ্ছে। চার ব্যাটার আউট হয়ে গেল!’

বিশেষ করে, কোহলি আর রোহিতের অল্প রানে ফেরায় বেশি উদ্বিগ্ন মনে হয়েছিল শোয়েবকে। কেন তিনি সেই সময় উদ্বিগ্ন হয়েছিলেন, সেটা ম্যাচ শেষেই স্পষ্ট হয়েছে। টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুর সেই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেননি কোহলিরা। ২০ ওভারে ৯ উইকেটে তুলেতে পেরেছে মাত্র ১৩৩ রান। লক্ষ্যটা দক্ষিণ আফ্রিকা পেরিয়ে গেছে ২ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখে।