default-image

ইংল্যান্ডের টেলিভিশন চ্যানেল স্কাই স্পোর্টসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে শাস্ত্রী শীর্ষ ছয় দলকে টেস্ট খেলার সুবিধা করে দেওয়ার কথা বলেছেন। তাঁর মতে, শীর্ষ ছয়ে থাকলে কোনো দল টেস্ট খেলবে, না থাকলে খেলবে না, ‘কোন শীর্ষ দল টেস্ট খেলবে, সেটি তাদের পারফরম্যান্স দিয়েই বিচার করা হোক। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা—যারাই খেলুক, নিজেদের শীর্ষ ছয়ে রেখেই তাদের খেলতে হবে। অন্য কোনো দল শীর্ষ ছয়ে এলে তারা খেলবে। মোট কথা যেকোনো দলকেই শীর্ষ ছয়ে আসতে হবে বাছাই উতরে।’

শাস্ত্রী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে ফুটবলের আদলে পরিচালনার কথা বলে আসছেন অনেক দিন ধরেই। স্কাই স্পোর্টসে সেটিই আবার বললেন, ‘ফুটবলের মতো করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট চলুক। ফুটবলে কী হয়? সেখানে একটিই বিশ্বকাপ, বড় আসর। ফুটবলাররা সারা বছর ধরে বিভিন্ন দেশে পেশাদার লিগ খেলে। ক্রিকেটেও সেটি হোক টি–টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ দিয়ে।’

default-image

টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে তাঁর ভাবনার নেপথ্যের ভাবনাটাও জানিয়েছেন শাস্ত্রী, ‘দেখুন, টেস্ট ক্রিকেট কাকে বলে, এই উত্তর আগে সবাইকে জানতে হবে। টেস্ট ক্রিকেট হচ্ছে ক্রিকেটারদের পরীক্ষা, এই পরীক্ষায় পাশ করতে হলে আপনার সামর্থ্য থাকতে হবে। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেট যদি মানসম্মত না থাকে, তাহলে এটি দেখবে কে! পাঁচ দিনের খেলা শেষ হবে দুই দিনে কিংবা তিন দিনে। যে দেশ কখনোই টেস্ট খেলেনি, সেই দেশকে যদি টেস্টে বোলিং উপযোগী কন্ডিশনে ইংল্যান্ড, ভারত কিংবা অস্ট্রেলিয়ার সামনে ছেড়ে দেন, তারা কি খেলতে পারবে? এই টেস্ট সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা সংস্থাও ব্যবসা ঠিকমতো করতে পারবে না। পাঁচ দিনের খেলা দুই দিনে শেষ হলে তো ক্ষতি তারও। পাঁচ দিনের ম্যাচ দুই দিনে শেষ হলে ক্রিকেটপ্রেমীরাও খুশি হবেন না।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন