আয়ারল্যান্ড সিরিজে ব্যাট হাতে নতুন ভূমিকায় দেখা গেছে মুশফিকুর রহিমকে। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মুশফিক খেলছেন ফিনিশার হিসেবে। নতুন ভূমিকায় তিনি কী করতে পারেন, তা সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৬০ বলে অপরাজিত ১০০ রানের ইনিংসটিই বলে দেয়।

এমন ইনিংসে আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে চার ধাপ এগিয়েছেন মুশফিক। ছন্দে না থাকা অধিনায়ক তামিম ইকবাল তিন ধাপ পিছিয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ার পেসার জস হ্যাজলউড না খেলেও ফিরেছেন আইসিসি বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে জেতা সিরিজে সিরিজ–সেরা কেইন উইলিয়ামসন এগিয়েছেন চার ধাপ।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতেও মুশফিক খেলেছিলেন ২৬ বলে ৪৪ রানের ইনিংস। এমন দুই ইনিংসে ৪ ধাপ এগিয়ে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৮ নম্বরে উঠে এসেছেন মুশফিক।

আরও পড়ুন

‘বাংলাদেশের কেউ এমন সেঞ্চুরি করেনি’

অধিনায়ক তামিম সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৩ রানে আউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ওয়ানডেতে করেছেন ২৩ রান। ৩ ধাপ পিছিয়ে তামিম এখন আছেন ২২ নম্বরে। এই সিরিজে অভিষেক হওয়া তাওহিদ হৃদয় সিরিজের প্রথম ২ ওয়ানডেতে ৯২ ও ৪৯ রানের ইনিংস খেললেও এখনো শীর্ষ ১০০–তে ঢুকতে পারেননি।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৬০ বলে সেঞ্চুরি করেন মুশফিক
ছবি: প্রথম আলো

চোটের কারণে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে খেলতে পারেননি হ্যাজলউড। খেলতে পারছেন না ওয়ানডে সিরিজেও। এরপরও শীর্ষস্থান ফিরে পেয়েছেন হ্যাজলউড। তাঁকে মূলত শীর্ষস্থানে ফিরিয়েছেন তাঁর সতীর্থরাই। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৩ ওভারে ৩৭ রান খরচা ২৭ রেটিং পয়েন্ট পিছিয়ে দিয়েছে সিরাজকে।

গত সপ্তাহে শীর্ষে থাকা সিরাজ নেমে গেছেন ৩ নম্বরে। ২ নম্বরে থাকা হ্যাজলউড এই সুযোগে উঠেছেন শীর্ষে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৬১ বলে ১১৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন হাইনরিখ ক্লাসেন। তাতে ১৩ ধাপ এগিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৩০তম স্থানে উঠে এসেছেন ক্লাসেন।

আরও পড়ুন

উইলিয়ামসনের পেছনে রুট–কোহলি, সামনে স্মিথ

ওয়েলিংটন টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন উইলিয়ামসন। ডাবল সেঞ্চুরির পথে টেস্টে ৮ হাজার রানের মাইলফলকও টপকে যান এই ব্যাটসম্যান। সিরিজের প্রথম টেস্টেও উইলিয়ামসন ১২১ রানের ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েছিলেন।

তাতে ৫১ রেটিং পয়েন্ট বেড়ে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ের দ্বিতীয় স্থানে উইলিয়ামসন। উইলিয়ামসন দুইয়ে উঠে আসায় এক ধাপ করে পিছিয়েছেন স্টিভ স্মিথ, জো রুট ও বাবর আজম। ৯১৫ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে মারনাস লাবুশেন। লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নের কাছে শীর্ষ দশে জায়গা হারিয়েছেন রোহিত শর্মা।

আরও পড়ুন

‘বাংলাদেশের পক্ষে ৪০০ রান করা সম্ভব’