বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত ১১ এপ্রিল পোল্যান্ডের সরকারি চ্যানেল টিভিপিস্পোর্ট জানিয়েছিল লেভানডফস্কি আর বায়ার্নে থাকতে রাজি নন। ক্লাব কিংবদন্তি ও বর্তমান প্রধান নির্বাহী অলিভার কানকেও নাকি ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন। লেভানডফস্কি এরই মধ্যে বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তির ব্যাপারে কথা পাকাও করে ফেলেছেন। পোলিশ স্ট্রাইকারের পরবর্তী গন্তব্য? বার্সেলোনা।

বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে লেভানডফস্কির চুক্তি শেষ হবে ২০২৩-এর জুনে। ৩৩ বছর বয়সী লেভানডফস্কির চুক্তি নবায়ন করতে চাইছে বায়ার্ন। কিন্তু লেভানডফস্কি নাকি এতে রাজি হচ্ছেন না। তাঁর এজেন্ট পিনি জাহাবি অন্য ক্লাবের সঙ্গে কথা বলছেন। পোল্যান্ডের সংবাদমাধ্যমগুলো দাবি করেছে, বার্সেলোনার সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি পাকা করে ফেলেছেন।

default-image

বায়ার্নের পরিচালক হাসান সালিহামিজিচ এমন খবরকে পাত্তাই দেননি। মৌসুমে ৫০টি গোল এনে দেওয়ার নিশ্চয়তা দেন, এমন স্ট্রাইকারকে কে ছাড়তে চায়? এ নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে বলেছিলেন, ‘বার্সেলোনা আমাদের ৪ বা ৫ কোটি ইউরোর প্রস্তাব দিলে লেভানডফস্কিকে বিক্রি করব কি না? না! সে এই গ্রীষ্মেও ক্লাবে থাকবে। ২০২৩ সাল পর্যন্ত তাঁর চুক্তি আছে।’

গত সপ্তাহে লিগ শিরোপা নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন। টানা ১০ লিগ শিরোপা জয়ের আটটিতেই অবদান রেখেছেন লেভানডফস্কি। শিরোপা জেতার পরও ক্লাবকে আশার কথা শোনাননি লেভা, ‘আমি কি মিউনিখে থাকব? এটা দুই পক্ষের ওপর নির্ভর করে। পরিস্থিতিটা সহজ না। ক্লাব কি আমাকে ধরে রাখতে চায়? আপনাদের উচিত ক্লাবকে জিজ্ঞেস করা।’

লেভানডফস্কির ইঙ্গিতটা পরিষ্কার। মধ্য ত্রিশের কাছাকাছি চলে যাওয়া এই স্ট্রাইকার ক্যারিয়ারের গুরুত্বপূর্ণ বাঁকে হাজির হয়েছেন। বড় চুক্তি স্বাক্ষরের এটাই শেষ সুযোগ তাঁর। এই অবস্থায় বেতন–বোনাস একটু বেশি চাওয়াই স্বাভাবিক। কিন্তু খেলোয়াড়দের বেশি বেতন দেওয়ার ক্ষেত্রে বরাবরই আপত্তি বায়ার্নের। এ সুযোগই নিতে চাইছে বার্সেলোনা। কিন্তু বায়ার্ন যদি ছাড়তে রাজি না হয়, তাহলে তো আর জোর করে তাঁকে নেওয়া যায় না।

default-image

লেভানডফস্কির এজেন্ট জাহাবির সঙ্গে আজ বায়ার্নের আলোচনাও এসব নিয়েই। এই মৌসুমে ৪৬ গোল করা স্ট্রাইকারকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করবেন জাহাবি।
লেভানডফস্কির হাতে অবশ্য আরেকটি উপায় আছে। ওয়েবস্টার নিয়ম অনুযায়ী, একজন খেলোয়াড়কে মৌসুম শেষ হওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে ছেড়ে যাওয়ার ইচ্ছা জানাতে হয় তাঁর বর্তমান ক্লাবকে। নতুন যে ক্লাবে যাবেন, সেটা অন্য কোনো দেশের হতে হবে এবং নতুন ক্লাবকে পুরোনো ক্লাবকে ওই খেলোয়াড়ের বেতনের সমান ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

লেভানডফস্কি যেহেতু বায়ার্নের কাছ থেকে বেতন বাবদ করসহ ২ কোটি ৩০ লাখ ইউরো পান, বার্সেলোনাকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে এই অর্থ দিতে হবে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন