স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা বলছে, গত সপ্তাহেই অবসরের সিদ্ধান্তের কথা বার্সা সভাপতি হোয়ান লাপোর্তাকে জানান পিকে। নিজের এবং ক্লাবের জন্য এটিকেই সেরা সিদ্ধান্ত মনে করেছিলেন বিশ্বকাপ জয়ী এই তারকা।

১৪ বছর ধরে বার্সার মূল দলে খেলা পিকের প্রস্তাব মেনে নিয়ে তাঁকে লাপোর্তা প্রস্তাব দিয়েছিলেন যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বিদায়ের ঘোষণা দিতে, যেখানে পিকের সঙ্গে ক্লাব প্রতিনিধিও উপস্থিত থাকবেন।

তবে পিকে সভাপতির এ প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। বিদায়ের সিদ্ধান্তটা পিকে মূলত নিজের মতো করেই জানাতে চেয়েছিলেন। এর ধারাবাহিকতাতেই এসেছে গতকাল রাতের আকস্মিক ঘোষণাটি।

পিকের বিদায়ের ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন লা লিগা সভাপতি হাভিয়ের তেবাস। পিকে ভবিষ্যতে বার্সার সভাপতি হবেন, এমনটা জানিয়ে তেবাস বলেছেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই, পিকে একদিন বার্সার অসাধারণ একজন সভাপতি হবে। বার্সা সভাপতি হওয়ার মতো তিনটি গুণ তার আছে। সে এই ক্লাবের সঙ্গে ২৫ বছর ছিল, খেলোয়াড় হিসেবে তার বিশ্ব ফুটবল সম্পর্কে ধারণা আছে এবং সে একজন ব্যবসায়ী হিসেবে ফুটবল ও ক্রীড়া ব্যবসা সম্পর্কে ধারণা রাখে।’

পিকের বিদায়ের সঙ্গে যে অর্থনীতির যোগ ছিল, তা নিশ্চিত করেছেন বার্সা সভাপতি লাপোর্তাও, ‘সে ক্লাবের একজন আইকন। ২৫ বছর ধরে সে ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত ছিল। তার মতো একজন খেলোয়াড়কে দলে পাওয়া সম্মানের ব্যাপার। পিকে আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থা বুঝতে পেরেছে। বেতন–ভাতার সমন্বয় জরুরি ছিল। সে এটা জানত এবং ক্লাবকে সহয়তা করতে খুবই আগ্রহী ছিল।’

পিকের বিদায়ের ঘোষণায় অর্থনৈতিকভাবে এখন লাভবান হতে যাচ্ছে বার্সা। সব মিলিয়ে এর মধ্য দিয়ে বার্সার ৪৪ মিলিয়ন পাউন্ড বাঁচবে। এর আগেও বেতন কমিয়ে এবং মজুরি স্থগিত রেখে ক্লাবকে সহায়তা করেছিলেন পিকে।