বার্সেলোনার জার্সিতে এ মৌসুমে আর দেখা যাবে না আনসু ফাতিকে। বিবিসি জানিয়েছে, ২০ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ড আজ ইংল্যান্ডে যাবেন, সেখানে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ব্রাইটনে ধারে খেলার চুক্তিপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন। ২০২৪ সালের জুন পর্যন্ত ব্রাইটনে ধারে খেলবেন ফাতি।

আরও পড়ুন

জাভির অপছন্দ হয়ে বার্সায় থাকতে চান না ফাতি

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এর আগে জানিয়েছিল, কোচ জাভি হার্নান্দেজের অনাস্থা নিয়ে বার্সেলোনায় থাকতে চান না ফাতি। বার্সেলোনার একাডেমি লা মেসিয়ায় বেড়ে ওঠা ফাতি মূল দলে খেলা শুরু করেন মাত্র ১৬ বছর বয়সে, ২০১৯ সালে। ওসাসুনার বিপক্ষে লিগ অভিষেকের দিনে তিনি ছিলেন বার্সেলোনার ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড়।

পরের সপ্তাহে ক্লাবের সর্বকনিষ্ঠ হিসেবে রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে লা লিগায় গোলের রেকর্ডও গড়েন। ২০২১ সালে মেসি চলে যাওয়ার পর আইকনিক ১০ নম্বর জার্সিও দেওয়া হয় তাঁকে। গত বিশ্বকাপে স্পেনের স্কোয়াডে জায়গা পাওয়া ফাতিকে বিবেচনা করা হয় বিশ্বের অন্যতম সেরা উঠতি প্রতিভা হিসেবে। কিন্তু ক্রমাগত চোট ও পড়তি ফর্মের কারণে ফাতির ওপর আর আস্থা রাখতে পারেননি জাভি। প্রাক্‌–মৌসুম পর্বে ফাতিকে নিয়ে জাভি বলেছিলেন, ‘ওর নিয়মিত সুযোগ পাওয়ার নিশ্চয়তা আমি দিতে পারছি না। এটা বার্সেলোনা, এনজিও নয়।’

আরও পড়ুন

বার্সেলোনায় কে কত বেতন পান

এদিকে ফাতিরও নিয়মিত ম্যাচ খেলা দরকার, তারকা হয়ে উঠতে আরও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব নিতে হবে, যেটা বার্সায় সম্ভব হচ্ছে না। এসব বিবেচনা করেই ব্রাইটনে ধারে যাচ্ছেন। এ মৌসুমে বার্সার হয়ে ৩ ম্যাচে মাঠে নামলেও একাদশে সুযোগ পাননি ফাতি। তিন ম্যাচে সব মিলিয়ে মাঠে ছিলেন মাত্র ৪৭ মিনিট। রাফিনিয়া নিষেধাজ্ঞার কারণে দুই ম্যাচ বাইরে থাকলেও ফাতিকে একাদশে বিবেচনা করেননি জাভি।

বার্সার পক্ষ থেকে তাঁর এজেন্ট হোর্হে মেন্দেজ ও বাবা বোরিকে বলা হয়েছিল, এক বছর ফাতি যেন অন্য কোনো ক্লাবে যোগ দেন, তাতে নিয়মিত খেলার সুযোগ পাবেন। এরপর বার্সায় ফিরিয়ে আনা হবে। ফাতিকে এর আগে ‘সম্পদ’ হিসেবেই দেখেছে বার্সা। ২০২০ সালে তাঁর জন্য ১৫ কোটি ইউরোর প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিল কাতালান ক্লাবটি। এক বছরের কম সময় আগে বার্সার সঙ্গে ২০২৭ সাল পর্যন্ত চুক্তি নবায়ন করেছেন ফাতি। বার্সা তাঁর ‘রিলিজ ক্লজ’ ঠিক করেছিল ১০০ কোটি ইউরো।