নিজে এখনো শেষ না দেখলেও পর্তুগিজ এক টেলিভিশন চ্যানেল ভিন্নভাবে রোনালদোকে বিদায় নেওয়ার ইঙ্গিতই দিল।

default-image

পর্তুগিজ ফুটবল ফেডারেশনের আয়োজনে কুইনাস ডি ওরো গালা অনুষ্ঠানে পর্তুগালের ফুটসাল কিংবদন্তি রিকার্ডিনহো নিজের বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলছিলেন, ‘আমি জাতীয় দল থেকে সরে দাঁড়িয়েছি, যাতে নতুন প্রজন্ম দায়িত্ব নিতে পারে। আজ আমার মনে হয়, এ সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল।’

রিকার্ডিনহো যখন নতুন প্রজন্মকে জায়গা করে দেওয়ার কথা বলছিলেন, টিভি ক্যামেরায় তখন দেখা যাচ্ছিল দর্শকসারিতে থাকা রোনালদোর মুখ। সেই একই অনুষ্ঠানে রোনালদো বলেছেন, আরও লম্বা সময় খেলতে চান তিনি।

নতুন মৌসুমে সাদামাটা শুরুর পর বর্তমানে আন্তর্জাতিক বিরতিতে জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন রোনালদো। উয়েফা নেশনস লিগের ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্র ও স্পেনের বিপক্ষে খেলবে পর্তুগাল।

এর আগে পর্তুগিজ ফুটবল ফেডারেশনের দেওয়া সেরা গোলদাতার পুরস্কার হাতে নিয়ে নিজের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে কথা বলেছেন রোনালদো। সিআর সেভেন বলেছেন, ‘এটা অনেক লম্বা রাস্তা। তবে আমি বলতে চাই, রাস্তাটা এখনো শেষ হয়নি। আমি বেশ অনুপ্রাণিত বোধ করছি, আমার আকাঙ্ক্ষা অনেক উঁচুতে। আমি এই বিশ্বকাপের অংশ হতে চাই এবং ২০২৪ ইউরোও খেলব বলে ভাবছি।’

পুরস্কার পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে রোনোলদো আরও বলেছেন, ‘যে দেশকে আমি ভালোবাসি, তার জাতীয় দলের হয়ে সেরা গোলদাতার পুরস্কার জিততে পেরে আমি গর্বিত। আমার সব সতীর্থ, কোচদের, পরিবার, বন্ধু ও ভক্তদের ধন্যবাদ। তাঁরাই আমাকে এ অর্জনে সহায়তা করেছেন। একসঙ্গে আমরা সম্ভাব্য আরও অনেক রেকর্ড ভাঙতে চাই। ধন্যবাদ।’

২০০৩ সালে পর্তুগালের জার্সিতে অভিষেক হয় রোনালদোর। শুরু থেকেই দলের গুরুত্বপূর্ণ তারকা হয়ে ওঠেন সাবেক এই রিয়াল মাদ্রিদ তারকা। এখন পর্যন্ত দেশের হয়ে ১০টি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টও খেলেছেন তিনি। জিতেছেন ২০১৬ সালের ইউরো।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন