টুইট বার্তায় বিশ্বকাপ না খেলার কথা নিশ্চিত করেছেন ভেরনার নিজেও, ‘আমার জন্য ব্যাপারটা মেনে নেওয়া খুবই কঠিন। তবু আগামী কয়েক সপ্তাহ আমাকে মাঠের বাইরেই থাকতে হবে। বিশ্বকাপ মিস করব। দুর্ভাগ্যজনকভাবে শয্যায় থেকে জার্মানি ও লাইপজিগকে সমর্থন করে যেতে হবে আমার।’

জার্মানির হয়ে এখন পর্যন্ত ৫৫ ম্যাচে ২৪ গোল করেছেন ভেরনার। গত বছরের অক্টোবরে প্রথম দল হিসেবে জার্মানির বিশ্বকাপ টিকিট কাটার ম্যাচেও জোড়া গোল করেন তিনি। চলতি মৌসুমে লাইপজিগের হয়ে খেলেছেন ১৬ ম্যাচ, এর মধ্যে গোল ৯টি।

ছন্দে থাকা ২৬ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের চোটে পড়ার কথা শুনে ভীষণ ব্যথিত জার্মান কোচ হ্যান্সি ফ্লিক, ‘এটা খুবই খারাপ খবর। টিমোর জন্য আমার খুব খারাপ লাগছে, কারণ বিশ্বকাপ খেলার জন্য সে মুখিয়ে ছিল। সবচেয়ে বড় কথা ওর অনুপস্থিতি দলের জন্য বড় ক্ষতি। আমি ওর দ্রুত সুস্থতা কামনা করি।’

বিশ্বকাপের জন্য ফ্লিকের হাতে অবশ্য এখনো ভালো আক্রমণভাগ আছে। অভিজ্ঞ থমাস মুলারের পাশাপাশি কাই হাভার্টজ, সের্গি জিনাব্রি এবং লেরয় সানেরা আছেন। কাতারে জার্মানির বিশ্বকাপ অভিযান শুরু হবে ২৩ নভেম্বর জাপানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। ‘ই’ গ্রুপে জার্মানদের অপর দুই প্রতিপক্ষ স্পেন (২৮ নভেম্বর) এবং কোস্টারিকা (২ ডিসেম্বর)।