৬৪ বছর পর বিশ্বকাপে ফেরা ওয়েলসের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে মার্কিনরা। আল রাইয়ানের আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে ৮২ মিনিটে গ্যারেথ বেলের পেনাল্টি গোলে সমতায় ফেরে ওয়েলস। টিমোথি যুক্তরাষ্ট্রকে একমাত্র গোলটি উপহার দিয়েছিলেন ম্যাচের ৩৬ মিনিটে।

দারুণ এক প্রতি–আক্রমণ থেকেই  গোলটা পায় যুক্তরাষ্ট্র। জশ সার্জেন্ট ও দলের সবচেয়ে বড় তারকা ক্রিস্টিয়ান পুলিসিকের সমন্বয়ে গড়া সেই আক্রমণ খুঁজে নেয় আগুয়ান টিমোথি উইয়াহকে। মাথা ঠান্ডা রেখে এগিয়ে আসা ওয়েলস গোলরক্ষক ওয়েইন হেনেসিকে ফাঁকি দিয়ে দলকে এগিয়ে দেন ফরাসি ক্লাব লিলে খেলা টিমোথি উইয়াহ।

প্রথমার্ধে আধিপত্য ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। তবে বিরতির পর দাপটের সঙ্গেই ম্যাচে ফেরে গ্যারেথ বেলের ওয়েলস। ৬৪ মিনিটে তো অল্পের জন্যই গোল পায়নি দলটি। দারুণ ক্ষিপ্রতায় ওয়েলস ডিফেন্ডার বেন ডেভিসের হেড আঙুলের ছোঁয়ায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে বাইরে পাঠান যুক্তরাষ্ট্রের গোলরক্ষক ম্যাট টার্নার। মিনিট না পেরোতেই কর্নার থেকে পাওয়া বলে আবারও ওয়েলসকে গোল প্রায় এনে দিয়েছিলেন কিয়েফার মুর। অল্পের জন্য বার উঁচিয়ে যায় তাঁর সেই চেষ্টা। যুক্তরাষ্ট্রও সুযোগ পেয়েছিল এরপর। হাজি রাইট ও পুলিসিকরা নষ্ট করেছেন তা।  

ওয়েলস সমতা ফেরায় টিমোথি উইয়াহ চোট পেয়ে ৭৯ মিনিটে মাঠ ছাড়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই। পেনাল্টি বক্সে বেলকে ফেলে দেন ওয়াকার জিমারমান। সেই পেনাল্টিতে গোল পেতে ভুল করেননি বেল।

ম্যাচের বাকিটা সময় আর গোল করতে পারেনি কোনো দল।