এমনিতে লিওনেল মেসির বড় ভক্ত ডি পল। লিওনেল মেসি বললে যুদ্ধে যাওয়ার কথাও ভেবে দেখবেন—মেসিতে মুগ্ধ হয়ে বছর দুয়েক আগে এ কথাও বলেছিলেন মাঝমাঠ চষে বেড়ানো এ ফুটবলার। জাতীয় দলের জার্সিতে মেসিকে কোপা আমেরিকার শিরোপা এনে দিতেও বড় ভূমিকা রেখেছিলেন ডি পল। সতীর্থদের সঙ্গে রসিকতায় ডি পলের জুড়ি মেলা ভার। আর মাঝেমধ্যে তাঁর রসিকতার চরিত্র হয় ওঠেন দলের অধিনায়কও।

default-image

এই দুই প্রীতি ম্যাচে জয় পেলে কিংবা ড্র করলে টানা অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়বে আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনা টানা ৩৩ ম্যাচ ধরে অপরাজিত। সে ক্ষেত্রে হন্ডুরাসকে হারাতে পারলে নিজেদের টানা অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়বে লিওনেল মেসির দল। এর আগে ১৯৯১ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত টানা ৩৩টি ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়েছিল আর্জেন্টিনা।

হন্ডুরাসের পর জ্যামাইকার বিপক্ষে জয় পেলে বা ড্র করলে টানা ৩৫ ম্যাচ অপরাজিত নিয়ে সর্বকালের রেকর্ডে যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে উঠে যাবে আর্জেন্টিনা। ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৬ সালের মধ্যে টানা ৩৫ ম্যাচ অপরাজিত থাকার আগের কীর্তিটি ব্রাজিলের। টানা ম্যাচ জয়ের রেকর্ডটি এখন ইতালির। ২০১৮ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত টানা ৩৭ ম্যাচ অপরাজিত ছিল রবার্তো মানচিনির দল।

বিশ্বকাপের আগে রেকর্ড নয়, লিওনেল স্কালোনির চোখটা থাকবে সম্ভবত দলের রসায়ন আরও বাড়ানোর দিকে। কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা খেলবে গ্রুপ ‘সি’তে। সেখানে মেসিরা খেলবেন মেক্সিকো, পোলান্ড ও সৌদি আরবের বিপক্ষে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন