এভাবে চলতে থাকলে হয়তো টেনিস থেকে অবসরের কথাই ভাববেন নাদাল, এমনটা মনে করেন আরেক কিংবদন্তি জন ম্যাকেনরো। সাতটি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী আমেরিকান কিংবদন্তির কথা, ‘রাফাকে নিয়ে আমি যা শুনেছি, সেটি হলো, সে খেলাটা চালিয়ে যেতে চায়। সে টেনিস ভালোবাসে। জিততে ভালোবাসে। আমরাও সবাই নাদালের খেলা ভালোবাসি। কিন্তু শরীর যদি সায় না দেয়, নাদাল নিজে যদি নিজের সর্বোচ্চটা কোর্টে দিয়ে বড় টুর্নামেন্ট জেতার মতো শারীরিক ফিটনেস ও সুস্থতা অর্জন করতে না পারে, আমি মনে করি, সে টেনিসকে বিদায়ই বলবে। এখন প্রশ্নটা হলো, সেটি কখন।’

আগামী মে মাসেই ফ্রেঞ্চ ওপেন। ম্যাকেনরোর ধারণা, ফ্রেঞ্চ ওপেনের পরই খেলা ছেড়ে দিতে পারেন নাদাল, ‘খুব শিগগির যদি নাদাল অবসর নেয়, সেটি হতে পারে মে মাসের ফ্রেঞ্চ ওপেনের পরপরই। শারীরিকভাবে একটু ভালো বোধ করলে সে আরও দু–তিন বছর খেলে যেতে পারে। তবে পুরোটাই নির্ভর করছে তাঁর শরীর খেলার জন্য কতটা ফিট থাকে, সেটির ওপর। তবে শিরোপা যদি জিততে না পারে, আমার মনে হয়, সে খেলা ছেড়ে দেবে।’