আপনার হাতে থাকা গুগলের ১১টি শেয়ার ২০১৪ সালে স্প্লিটের পর ১১টি ক্লাস এ এবং ১১টি ক্লাস সি শেয়ার হয়ে যেত। মোট শেয়ার ২২টি হলেও কেবল ১১টিতে আপনার ভোটাধিকার থাকত।

এখানে একটি বিষয় মাথায় রাখা জরুরি। ২০১৫ সালে অ্যালফাবেট নামের নতুন একটি প্রতিষ্ঠান গঠন করা হয়। গুগল ও এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠানগুলো তখন অ্যালফাবেটের অঙ্গপ্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়। আগে যাঁরা গুগলের শেয়ারহোল্ডার ছিলেন, তাঁরা পরবর্তী সময়ে অ্যালফাবেটের শেয়ারের মালিক হন। অর্থাৎ, বিনিয়োগকারীদের দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করলে কেবল নামটাই বদলেছে, আর কিছু নয়।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের নাজদাক স্টক এক্সচেঞ্জে গতকাল অ্যালফাবেটের ক্লাস এ শেয়ারের প্রতিটি সর্বশেষ ২ হাজার ৫১০ দশমিক ৩৭ ডলার দরে বিক্রি হয়েছে। অর্থাৎ, আপনার ১১টি ক্লাস এ শেয়ার বিক্রি করতে পারতেন ২৭ হাজার ৬১৪ ডলারে।

অন্যদিকে একই স্টক এক্সচেঞ্জে অ্যালফাবেটের ক্লাস সি শেয়ারের প্রতিটি সর্বশেষ ২ হাজার ৫৯১ দশমিক ৪৯ ডলার দরে বিক্রি হয়েছে। অর্থাৎ, আপনার ১১টি ক্লাস সি শেয়ার বিক্রি করতে পারতেন ২৮ হাজার ৫০৬ ডলারে।

দুটি এক করলে দাঁড়ায় ৫৬ হাজার ১২০ ডলার। বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে গত ৮ জুলাই মার্কিন ডলারের ক্রয়মূল্য ছিল ৮৪ টাকা ৮০ পয়সা। অর্থাৎ, বাংলাদেশি মুদ্রায় পরিমাণটি ৪৭ লাখ ৫৯ হাজার টাকার মতো।

আমরা বলতে পারি, ২০০৪ সালে আইপিওর সময় গুগলের কেবল ৯৩৫ ডলারের শেয়ার কিনলে আজ তা ৬০ গুণের বেশি হতো।