বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মার্কেটপ্লেসের পেমেন্ট উইথড্র বিভাগে পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট যুক্ত করলেই পারিশ্রমিকের টাকা আপনার পেওনিওর অ্যাকাউন্টে জমা হবে। পরে পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যাংকে টাকা আনতে হবে। ফলে আপনি সহজেই নিজের ব্যাংক থেকে পারিশ্রমিকের অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন। এ ছাড়া কেউ যদি সরাসরি ক্লায়েন্টের সঙ্গে কাজ করেন, সে ক্ষেত্রে পেওনিয়ারের পেমেন্ট রিকোয়েস্ট অপশন ব্যবহার করে নিজেদের অ্যাকাউন্টে অর্থ আনতে পারবেন।

পেমেন্ট প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারের সময় বেশ কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত।
অ্যাকাউন্ট অবশ্যই নিজের নামে খুলতে হবে। অনলাইনে অর্থ পরিশোধের আগে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র বা পাসপোর্টের তথ্য যাচাই করতে পারে পেওনিয়ার। এ জন্য বাসার ঠিকানা সঠিক দিতে হবে। অনেক সময় ঠিকানা যাচাইয়ের জন্য পেওনিয়ার আপনার কাছে বিদ্যুৎ বা গ্যাস বিলের ফটোকপি চাইতে পারে। এ ক্ষেত্রে বিলের তথ্যের সঙ্গে বাসার ঠিকানা না মিললে আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

নিজের নামে একাধিক অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে না। কারণ, একজন ব্যক্তিকে একটি অ্যাকাউন্ট খোলার অনুমতি দিয়ে থাকে পেওনিয়ার।

অনলাইনে ডলার কেনাবেচা থেকে বিরত থাকতে হবে। পেওনিয়ারে এক অ্যাকাউন্ট থেকে অন্য অ্যাকাউন্টে ডলার পাঠানো যায়। অনেকেই এই সুবিধা কাজে লাগিয়ে অনলাইনে ডলার কেনাবেচা করেন যা বাংলাদেশের আইনে নিষিদ্ধ। এ ছাড়া পেওনিয়ার যদি এ ধরনের সন্দেহজনক কোনো কর্মকাণ্ড দেখতে পায় তবে তারাও আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেবে।

সরাসরি ব্যাংকে অর্থ পাঠানো

পেওনিয়ার ছাড়াও বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস সরাসরি ফ্রিল্যান্সারদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ পাঠিয়ে থাকে। এ জন্য মার্কেটপ্লেসের পেমেন্ট বিভাগে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য, সুইফট কোড, রাউটিং নম্বর দিয়ে অ্যাকাউন্ট নম্বর যুক্ত করতে হবে।

ওয়াইজ

মার্কেটপ্লেস থেকে টাকা আনার আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ‘ওয়াইজ’। ওয়াইজ অ্যাকাউন্ট খোলার পর নম্বরটি মার্কেটপ্লেসের পেমেন্ট অপশনে যুক্ত করলেই ক্লায়েন্টদের পাঠানো অর্থ সরাসরি আপনার ওয়াইজ অ্যাকাউন্টে জমা হবে। পরে ওয়াইজ অ্যাকাউন্ট থেকে বাংলাদেশের নির্দিষ্ট ব্যাংকে থাকা আপনার অ্যাকাউন্টে অর্থ আনা যাবে।

মার্কেটপ্লেসের পাশাপাশি অনেকেই সরাসরি ক্লায়েন্টের কাছ থেকে জুম, রিয়া, রেমিটলি ইত্যাদির মাধ্যমে নিজেদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ নিয়ে আসেন।

লেখক: আপওয়ার্ক টপ রেটেড প্লাস ফ্রিল্যান্সার
পরের পর্ব: ফ্রিল্যান্সারদের অর্থ ব্যবস্থাপনা

টিপস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন