‘মি. বিস্ট’–এর আগে ইউটিউবে মাত্র ৪টি চ্যানেল ১০ কোটি সাবসক্রাইবার পেয়েছে। চ্যানেলগুলো হলো—টি-সিরিজ, কোকোমেলন, সেট ইন্ডিয়া এবং স্বতন্ত্র কনটেন্ট নির্মাতা পিউডিপাই। ইউটিউব চ্যানেলের ১০ কোটি সাবসক্রাইবার অর্জনের জন্য প্রায় প্রতিদিন নতুন ভিডিও প্রকাশ করেন জিমি ডোনালডসন। গত বছর ইউটিউবে তাঁর ভিডিওগুলো এক হাজার কোটিবারের বেশি দেখা হয়েছে। আর তাই ইউটিউবের সবচেয়ে বেশি আয় করা কনটেন্ট নির্মাতার তালিকায় শীর্ষে ছিলেন তিনি।

ইউটিউবের জন্য নিয়মিত প্র্যাঙ্ক ও স্টান্ট ভিডিও পোস্ট করা হয় ‘মি. বিস্ট’ চ্যানেলে। বিষয়বস্তুর বিচিত্রতা, বিভিন্ন চ্যালেঞ্জে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি পুরস্কার দেওয়ার ভিডিওগুলো দর্শকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। আর তাই ‘মি. বিস্ট’ চ্যানেলে থাকা বেশির ভাগ ভিডিওর ভিউয়ের সংখ্যা মিলিয়ন এবং কিছু ভিডিওর বেলায় বিলিয়ন ছাড়িয়েছে।

ইউটিউবে ১০ কোটি সাবসক্রাইবার অর্জনের পর জিমি ডোনালডসন বলেন, ‘১০ কোটি মানে অনেক। আমি ১১ বছর বয়স থেকেই ইউটিউবের জন্য ভিডিও তৈরি করছি। যাঁরা আমার ভিডিও দেখেছেন, তাঁদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। আমি মৃত্যুর দিন পর্যন্ত ইউটিউবার হিসেবে কাজ করব বলে আশা করি।’

সূত্র: ম্যাশেবল

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন