পাবজির আদলে তৈরি হলেও যুদ্ধের কাহিনিনির্ভর গেমটিতে বেশ কিছু বিষয়ে ভিন্নতা রয়েছে। পাবজি গেম চাইলে একা খেলা যায়। কিন্তু এপেক্স লেজেন্ডসে সব সময় দলগতভাবে শক্রর বিরুদ্ধে লড়তে হয়। ফলে খেলার শুরুতেই তিন সদস্যের একটি দল গঠন করতে হবে। অনলাইননির্ভর গেমটিতে যুদ্ধের ময়দানে নিজেকে রক্ষা করার পাশাপাশি শক্র চিনতে বেশ সতর্ক থাকতে হয়। কারণ, শক্র না চিনলে হঠাৎ করে আক্রমণের মুখোমুখি হতে হবে। এভাবে নিজেদের রক্ষার পাশাপাশি শক্র ধ্বংস করে যে দলটি বেঁচে থাকবে, তারাই বিজয়ী হবে গেমটিতে।

গেমের শুরুতে শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য কোনো অস্ত্র বা গোলাবারুদ পাওয়া যাবে না। তবে ম্যাপে থাকা নির্দেশনা কাজে লাগিয়ে ঘুরে ঘুরে গুলি, অস্ত্র, বোমা, ওষুধ ইত্যাদি সংগ্রহ করতে হবে। যুদ্ধের জন্য প্রয়োজনীয় অস্ত্র সংগ্রহের পর আবার ম্যাপের নির্দেশনা কাজে লাগিয়ে শক্র খুঁজে লড়াই করতে হবে। গেমটিতে শটগান ব্যবহার বেশ কঠিন হওয়ায় অস্ত্রটি দিয়ে শক্র ধ্বংস করা বেশ কঠিন। এ জন্য অবশ্যই আপনাকে বন্দুক ও স্নাইপার সংগ্রহ করতে হবে। দলের কোনো সদস্য শক্রর গুলিতে গুরুতর আহত হলে দলের অপর সদস্যরা রিভাইভ সুবিধা কাজে লাগিয়ে তাঁকে সুস্থ করে তুলতে পারবেন। মনে রাখতে হবে, এক মিনিটের মধ্যে এ সুবিধা ব্যবহার না করলে সেই সদস্য মারা যাবেন।

গেমটিতে গেমারদের চরিত্রগুলোকে বলা হয় ‘লেজেন্ডস’। রয়েছে লেজেন্ড পয়েন্ট সংগ্রহের সুযোগও। এই পয়েন্টের সাহায্যে বিভিন্ন সুবিধা ব্যবহার করা যাবে। লেজেন্ড পয়েন্ট শুধু গেমটির সাধারণ ব্যাটল রয়্যাল মোডে পাওয়া যাবে। র‍্যাঙ্ক মোডে এই সুবিধা পাওয়া যাবে না।

যেসব স্মার্টফোনে খেলা যাবে

অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ থেকে পরবর্তী যেকোনো অপারেটিং সিস্টেমে চলা স্মার্টফোনে খেলা যাবে গেমটি। তবে এ জন্য অবশ্যই স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৫, কিরিন ৬৫০, এক্সিনস ৭৪২০ মডেলের প্রসেসর, ৩ গিগাবাইট র‍্যামসহ প্রায় ৪ গিগাবাইট জায়গা খালি থাকতে হবে।

আইওএস ১১ থেকে পরবর্তী অপারেটিং সিস্টেম চলা আইফোনে গেমটি খেলতে কমপক্ষে এ৯ প্রসেসর, ২ গিগাবাইট র‍্যামসহ প্রায় ৪ গিগাবাইট জায়গা খালি থাকতে হবে।

গেমটি গুগল প্লে স্টোর ও অ্যাপস্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন