ম্যালওয়্যারবাইটস ল্যাবের তথ্যমতে, ব্যবহারকারীদের বোকা বানাতে ট্রোজান ঘরানার ভাইরাসটি অ্যাপের মধ্যে বিভিন্ন ভুয়া বিজ্ঞাপন দেখায়। বিজ্ঞাপনগুলোতে ক্লিক করলেই বিভিন্ন সেবা ব্যবহারের প্রলোভনে মুঠোফোন থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সাইবার অপরাধীদের পাঠাতে থাকে অ্যাপগুলো।

মুঠোফোন লক করা থাকলেও অ্যাপগুলো গোপনে ব্রাউজারে নতুন ট্যাব খুলে ক্ষতিকর কনটেন্টযুক্ত বিভিন্ন ওয়েবসাইট চালু করতে পারে। মুঠোফোনের লক খুলে ওয়েবসাইটগুলো দেখা যাওয়ায় অনেকে প্রলোভনে পড়ে বিভিন্ন লিংক বা বিজ্ঞাপনে ক্লিক করেন। ফলে মুঠোফোন থেকে তথ্য সংগ্রহ করতে থাকে সাইবার অপরাধীরা। শুধু তা–ই নয়, দীর্ঘ সময় বিভিন্ন ওয়েবসাইট চালু থাকায় মুঠোফোনের ব্যাটারির চার্জ কমে যায়।

মোবাইল অ্যাপস গ্রুপের তৈরি অ্যাপগুলো গুগলের নিরাপত্তাব্যবস্থার চোখ এড়িয়ে প্লে স্টোরে জায়গা করে নেওয়ায় এরই মধ্যে ১০ লাখ বারের বেশি নামানো হয়েছে। নিরাপদ থাকতে দ্রুত অ্যাপগুলো মুছে ফেলার পরামর্শ দিয়েছেন সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা।
সূত্র: বিজিআরডটইনডটকম