বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুদক সূত্র জানায়, টেকনাফ থানার সাবেক অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ (ওসি) ও তাঁর স্ত্রী চুমকি কারণ-এর বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধান করেন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজউদ্দিন। তাঁর অনুসন্ধান প্রতিবেদনের ভিত্তিতে প্রদীপ কুমার দাশ (ওসি) ও তাঁর স্ত্রী চুমকি কারণ-এর বিরুদ্ধে শিগগির মামলা দায়ের করার সিদ্ধান্ত হয়।

অভিযোগে বলা হয়েছে, প্রদীপ কুমার দাশ (ওসি) ও তাঁর স্ত্রী চুমকি একে অপরের সহযোগিতায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে দুর্নীতি দমন কমিশনে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার সম্পদ অর্জনের তথ্য গোপন করেন। একই সঙ্গে ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে জ্ঞাত আয়ের উৎসের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণভাবে তিন কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার সম্পদ অর্জন করেন। তাঁদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে চট্টগ্রামে মামলাটি দায়ের করা হবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন