স্পিকার মাহিন্দা ইয়াপা আবেবর্ধনে গতকাল বলেছিলেন, তাঁর সঙ্গে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়ার টেলিফোনে কথা হয়েছে। তিনি পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেবেন বলে জানিয়েছেন। গোতাবায়া তাঁকে বলেছেন, তাঁর অবর্তমানে প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহেকে তিনি ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব দিয়েছেন। তিনি এ বিষয়ে গেজেটও জারি করেছেন।

এদিকে মালদ্বীপের স্পিকার মোহাম্মদ নাশিদ টুইট করে জানিয়েছেন গোতাবায়া পদত্যাগ করেছেন।

টুইটে তিনি লিখেন, ‘প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে পদত্যাগ করেছেন। আশা করছি শ্রীলঙ্কা এখন এগিয়ে যেতে পারবে। আমি মনে করি তিনি এখনো শ্রীলঙ্কায় থাকলে পদত্যাগ করতেন না এবং প্রাণনাশের শঙ্কায় থাকতেন। আমি মালদ্বীপ সরকারের সুচিন্তিত পদক্ষেপের প্রশংসা করছি। শ্রীলঙ্কাবাসীর জন্য শুভকামনা রইল।’

এর আগে স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সৌদি এয়ারলাইনসের একটি বিমানে করে সিঙ্গাপুর পৌঁছান গোতাবায়া রাজাপক্ষে।

সিঙ্গাপুরের চাঙ্গি বিমানবন্দরে উপস্থিত এএফপির সাংবাদিক জানান, গোতাবায়াকে বহনকারী বিমানটি স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ১৭ মিনিটে সিঙ্গাপুরে পৌঁছায়। এ সময় তাঁর সঙ্গে স্ত্রী ও দুই দেহরক্ষী ছিলেন।

মালদ্বীপ থেকে গোতাবায়া সিঙ্গাপুরে আসছেন এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে বিমানবন্দরে ছুটে আসেন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের সংবাদকর্মীরা।

শ্রীলঙ্কান নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্রে জানা গেছে, গোতাবায়া রাজাপক্ষে অল্প কিছু সময়ের জন্য সিঙ্গাপুর থাকবেন। এরপর তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে যাত্রা করবেন।

নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকট ও গণ-আন্দোলনের মুখে গত মঙ্গলবার রাতে একটি সামরিক বিমানে দেশ ছেড়ে মালদ্বীপে পালিয়ে যান গোতাবায়া। গোতাবায়া মালদ্বীপে গেলে সে দেশে বসবাসরত শ্রীলঙ্কার বাসিন্দারা বিক্ষোভ দেখান। তাঁকে মালদ্বীপে আশ্রয় না দেওয়ার দাবি ওঠে তখন।

গতকাল বুধবার রাতে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে গোতাবায়াদের মালদ্বীপ থেকে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নিরাপত্তাসংক্রান্ত উদ্বেগ থেকে তাঁরা সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে ওঠা থেকে বিরত থাকেন। তাঁরা ব্যক্তিগত উড়োজাহাজে করে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন বলে খবর বের হয়। শেষ পর্যন্ত তাঁরা সৌদি এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে মালদ্বীপ ছাড়েন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন