পাকিস্তানের বল টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পিটিআইয়ের আরেক নেতা ইমরান ইসমাইল বলেছেন, হামলার সময় তিনি ইমরান খানের পাশে ছিলেন। পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর পায়ে তিন থেকে চারটি গুলি লেগেছে।

এ ঘটনায় পিটিআইয়ের আরেক নেতা ফয়সাল জাভেদ আহত হয়েছেন।

পাকিস্তানে আগাম নির্বাচনের দাবিতে লাহোর থেকে রাজধানী ইসলামাবাদের উদ্দেশ্যে লংমার্চ শুরু করেছেন ইমরান খান। গত শুক্রবার এই লংমার্চ শুরু হয়। এই লংমার্চে কন্টেইনার ব্যবহার করে বিশেষ গাড়ি তৈরি করা হয়েছে। এই গাড়িতে যাত্রা করছেন ইমরান খান।

ইমরান ইসমাইল বলেন, ওই কন্টেইনারের সামনে থেকে একে–৪৭ রাইফেল ব্যবহার করে গুলি চালানো হয়েছে।

ইমরান খান আশঙ্কামুক্ত বলে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভী জানিয়েছেন। এক টুইটে এই সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। আরিফ আলভী লিখেছেন, সাহসী ইমরান খানের ওপর ঘৃণ্য হত্যাচেষ্টা চালানো হয়েছে। আল্লাহকে ধন্যবাদ জানাই, তিনি আশঙ্কামুক্ত আছেন। তবে তাঁর পায়ে কয়েকটি গুলি লেগেছে। আশা করি, সেগুলো গুরুতর নয়।

একে দুঃখজনক ও কাপুরুষোচিত হামলা আখ্যায়িত করেছেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট।