ফয়সাল সুলতান বলেন, এক্স-রে ও স্ক্যানের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইমরানের পায়ে গুলির কয়েকটি টুকরা রয়েছে।

আজ শুক্রবার পিটিআই নেত্রী চিকিৎসক ইয়াসমিন রশিদ বলেন, ইমরানের এক পায়ে দুটি গুলি লেগেছে।

পিটিআই নেতা শাহ মাহমুদ কোরেশি টুইট করে বলেন, দলীয় প্রধান ইমরান এখন শঙ্কামুক্ত।

শাহ মাহমুদ আরও বলেন, এই হামলা শুধু ইমরান খানের ওপরই নয়, এটা গোটা পাকিস্তানি জাতির ওপর হামলা।

এদিকে লংমার্চ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে পিটিআইয়ের ছাত্রসংগঠন ইনসাফ স্টুডেন্টস ফেডারেশন। ইমরানকে উদ্ধৃত করে এক টুইটে তারা বলেছে, আজ বেলা ১১টা থেকে লংমার্চ শুরু হবে।

আগাম জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে গত ২৮ অক্টোবর পাকিস্তানের লাহোর থেকে রাজধানী ইসলামাবাদের উদ্দেশে দ্বিতীয় দফা লংমার্চ শুরু করেন ইমরান। লংমার্চ গতকাল পাঞ্জাবের ওয়াজিরাবাদে পৌঁছালে ইমরানকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। এই ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন, আহত কয়েকজন। সন্দেহভাজন হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পার্লামেন্টে আস্থা ভোটে হেরে গত এপ্রিলে ক্ষমতা হারান ইমরান। তার পর থেকে আগাম নির্বাচনের দাবিতে দেশজুড়ে কর্মসূচি পালন করে আসছে তাঁর দল।

গত ২৫ মে পিটিআই প্রথমবার লংমার্চ কর্মসূচি শুরু করে। কিন্তু ক্ষমতাসীন জোট ও পুলিশের বাধায় কর্মসূচি সহিংস হয়ে উঠলে তা স্থগিত করেন ইমরান।