অপরাধ

'জিনের বাদশাহ বলছি...'

‘জিনের বাদশাহ বলছি...’ বলে যখন-তখন ফোন আসে ফরিদপুরের বটতলা এলাকার বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে। ভয়ভীতি দেখিয়ে তাঁদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হয় অর্থসহ মূল্যবান সামগ্রী। তবে শেষরক্ষা হয়নি। এই প্রতারক চক্রের তিনজনকে গতকাল রোববার রাতে ওই এলাকা থেকে আটক করেছেন র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের সদস্যরা।

এই তিনজন হলেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানার চৎলারপাড় গ্রামের রাসেল মিয়া ও শাকিল মাতুব্বর এবং পাতরাইল গ্রামের সামসু মাতুব্বর।

র‍্যাবের দাবি, এ সময় স্বর্ণের বার বলে প্রচারিত ২২টি পিতলের সরঞ্জাম, ২টি ল্যাপটপ, ২৩টি মোবাইল সেট, ৮১টি সিমকার্ড, ৪ লাখ ৭৮ হাজার ৪০০ টাকা, বিভিন্ন ব্যাংকের চেক জব্দ করা হয়।

আজ সোমবার দুপুরে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. রাকিবউজ্জামান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এই প্রতারক চক্রের সদস্যরা ‘জিনের বাদশা বলছি...’ বলে লোকজনকে ফোন করে অর্থ হাতিয়ে নিতেন। আবার কখনো সাধু-সন্ন্যাসী সেজে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার কথা বলে প্রতারণা করতেন। নারী ও নিম্ন আয়ের মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিতেন অর্থসহ মূল্যবান সামগ্রী। যে মোবাইল থেকে কল করতেন, তা স্থায়ীভাবে বন্ধ করে রাখতেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে গভীর রাতে ফোন করে মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিতেন। আটক তিনজন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

র‌্যাব জানায়, এই চক্রের বাকি সদস্যদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে। আটক তিনজনের নামে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানায় মামলা হয়েছে। এরপর তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।