default-image

ঢাকার সাভারে স্কুলছাত্রী নীলা রায় হত্যা মামলার প্রধান আসামি মিজানুর রহমান ও তাঁর দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের পাঁচ দিন পর শুক্রবার রাতে সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের রাজফুলবাড়িয়া এলাকা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার চারিগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয় মিজানুরের বাবা আবদুর রহমান (৬০) ও মা নাজমুন্নাহার সিদ্দিকাকে (৫০)। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শুক্রবার তাঁদের তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করা হয় মিজানুরের আরেক সহযোগী সেলিম পালোয়ান নামের এক যুবককে। হত্যাকাণ্ডের সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

সাভার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, মিজানুর (২০) তাঁর দুই সহযোগী সাকিব (২১) ও জয়কে (২০) নিয়ে সাভারের রাজফুলবাড়িয়া এলাকার কর্নেল ব্রিকস ফিল্ডের পাশে স্থানীয় পারভেজের বাড়িতে বসে মাদক সেবন করছিলেন। গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পেরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে তাঁদের গ্রেপ্তার করে। সাকিব ও জয় হত্যাকাণ্ডের সময় উপস্থিত ছিলেন বলে জানান তিনি।

নীলার পরিবারের অভিযোগ, প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় নীলাকে হত্যা করেন মিজানুর। তিনি স্থানীয় একটি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী।

গত রোববার রাত আটটার দিকে ভাইয়ের সঙ্গে রিকশায় করে হাসপাতালে যাওয়ার পথে নীলাকে ছিনিয়ে নিয়ে বখাটে মিজানুর ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় নীলার বাবা নারায়ণ রায় গত সোমবার রাতে সাভার থানায় মিজানুর, তাঁর বাবা আবদুর রহমান, মা নাজমুন্নাহার সিদ্দিকাসহ অজ্ঞাতনামা আরও চারজনকে আসামি করে মামলা করেন।

মন্তব্য পড়ুন 0