সোমবার বিকেলে নগরের চৌহাট্টাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড় ঘুরে দেখা যায়, জেলা ও মহাগর বিএনপির অনেক নেতা বিলবোর্ড, পোস্টারে তাঁদের ছবির ওপরে এম সাইফুর রহমান ও ইলিয়াস আলীর ছবি দিয়ে সমাবেশ সফলের প্রচারণা চালাচ্ছেন। বিশেষ করে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর প্রতিটি বিলবোর্ড ও পোস্টারে জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়ার পাশাপাশি সাইফুর রহমান ও এম ইলিয়াস আলীর ছবিও আছে। সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর দিনার খান, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি তারেক আহমেদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুস সামাদের ব্যানার-পোস্টারেও এই দুই নেতার ছবি দেখা গেছে।

বিভাগীয় গণসমাবেশ উপলক্ষে সোমবার সিলেট নগরে প্রচার মিছিল বের করেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা-কর্মীরা। এই মিছিলের ব্যানারেও ছিল ইলিয়াস আলীর ছবি। পাশাপাশি অনেক নেতা-কর্মীর হাতে ছিল ইলিয়াস আলীর ছবি-সংবলিত ফেস্টুন।

বিএনপির একাধিক নেতা বলেন, একসময় এম সাইফুর রহমান ছিলেন সিলেট বিএনপির একক নেতা। এরপর ইলিয়াস আলীর উত্থান হলে দুই ধারায় সক্রিয় ছিল সিলেট বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনগুলো। সিলেটে সাইফুর রহমানের আস্থাভাজন ছিলেন আরিফুল হক। ২০০৯ সালের ৫ সেপ্টেম্বর সাইফুর রহমানের মৃত্যু ও ২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল ইলিয়াস আলী ‘নিখোঁজ’ হওয়ার পর দল আর ঐক্যবদ্ধ হয়নি। তবে এবার গণসমাবেশ সামনে রেখে বিভক্ত স্থানীয় বিএনপির অনেক নেতাই সাইফুর ও ইলিয়াসের ছবি ব্যবহারের বিষয়টি ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, সাইফুর রহমান ও ইলিয়াস আলী সিলেট বিএনপিকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। অনেক নেতা-কর্মী সৃষ্টি করেছেন। সিলেটের উন্নয়নে যে রকম তাঁদের অবদান রয়েছে, বিএনপির রাজনীতিতেও সমান অবদান রয়েছে। বর্তমান সময়ে তাঁদের অবদান স্মরণ করতেই বিলবোর্ডে তাঁদের ছবি রেখেছেন।