গত সোমবার সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের দুই ছাত্রের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মেডিকেলের শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওই রাতে হাসপাতালের সামনের সড়ক অবরোধ করেন। এতে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিক্ষানবিশ চিকিৎসকেরাও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে ধর্মঘটের ডাক দেন। পরে সোমবার রাতে প্রশাসনের আশ্বাসে গত মঙ্গলবার বেলা দুইটা পর্যন্ত কর্মসূচি স্থগিত ঘোষণা করেছিলেন শিক্ষার্থীরা।

এসব ঘটনায় মেডিকেল কলেজ প্রশাসন ও হাসপাতাল প্রশাসনের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট কোতোয়ালি থানায় পৃথক মামলা করা হয়। শ্লীলতাহানির চেষ্টার মামলায় একজনের এবং হামলার মামলায় সাতজনের নাম উল্লেখ করা হয়। তবে সব হামলাকারী ব্যক্তিরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় বিক্ষোভ এবং ক্লাস–পরীক্ষা বর্জন অব্যাহত রাখেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল বুধবার বেলা দেড়টার দিকে শিক্ষার্থীরা আবার হাসপাতালের সামনের সড়ক অবরোধ করে হামলার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে আজ সকাল আটটা পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিলেন।

এর মধ্যে শিক্ষার্থীর ওপর হামলার ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি দিব্য সরকারকে গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর আগে হামলার ঘটনায় সোমবার রাতে দুজনকে আটক করেছিল পুলিশ। পরে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

এদিকে আজ সকালে মেডিকেল কলেজের সম্মেলনকক্ষে হাসপাতালের পরিচালক, কলেজের অধ্যক্ষ, সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, স্বাস্থ্য অধিপ্তরের বিভাগীয় পরিচালকের সঙ্গে বৈঠক করেন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এনায়েত হোসেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন