মাঘের কুয়াশা আর কনকনে ঠান্ডা উপেক্ষা করে সকাল থেকে অনুষ্ঠানে অংশ নিতে জেলার ১৩টি উপজেলা থেকে শিক্ষার্থীরা এসে সমবেত হয়েছে দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় মাঠে। সকাল নয়টার মধ্যে সহস্রাধিক শিক্ষার্থী হাজির। তাদের সঙ্গে এসেছেন অভিভাবকেরাও। সকালের মিষ্টি রোদে দাঁড়িয়ে গল্পে মেতেছে কেউ কেউ। কেউবা আবার তুলছে ছবি ও সেলফি।

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলা থেকে অনুষ্ঠানে এসেছে মারিয়া কিপ্তিয়া। ভাইয়ের সঙ্গে এসেছে সে। উপজেলার বিন্যাকুড়ি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে মারিয়া। সে বলে, ‘পাঁচজন বন্ধু একসঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছি মাঠে। এত ভালো লাগছে বলে বোঝাতে পারব না।’

অনুষ্ঠানে এসে ভীষণ উচ্ছ্বসিত বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী সুরাইয়া আক্তার। সে বলে, ‘খুবই ভালো লাগছে। আমাদের ব্যাচ থেকে ৬৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছি। আজকে অনুষ্ঠানে এসেছি ৪০ জন। দীর্ঘ পাঁচ বছর একসঙ্গে পড়েছি। পরীক্ষার প্রায় ৩ মাস পরে আবার এতগুলো বন্ধু এত সুন্দর একটা অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছি। ভীষণ, ভীষণ এনজয় করছি।’

দেশের ৬৪টি জেলায় প্রথম আলোর আয়োজনে ও শিক্ষার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘শিখো’র পৃষ্ঠপোষকতায় জিপিএ-৫ উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ আয়োজনে সহযোগিতা করছে ফ্রেশ, এটিএন বাংলা ও প্রথম আলো বন্ধুসভা। দিনাজপুরে উৎসবে অংশ নিতে জিপিএ-৫ পাওয়া ২ হাজার ২৬০ শিক্ষার্থী নিবন্ধন করেছে।

সকালের শুরুতে নিবন্ধন ফরম দিয়ে নির্দিষ্ট বুথের সামনে লাইনে দাঁড়িয়ে সনদপত্র, ক্রেস্ট ও স্ন্যাকস বক্স সংগ্রহ করেছেন শিক্ষার্থীরা। সংবর্ধনায় শিক্ষার্থীদের জন্য আরও থাকছে প্রথম আলো ই-পেপার (১ মাস) ও চরকির (১৫ দিন) ফ্রি সাবস্ক্রিপশন, শিখোর সৌজন্যে বিনা মূল্যে কোর্স, ফ্রেশ ব্র্যান্ডের স্ন্যাকস বক্স।

সকাল আটটায় বোনের সঙ্গে অনুষ্ঠানে অংশ নিতে এসেছে পার্বতীপুর উপজেলার জ্ঞানাঙ্কুর পাইলট উচ্চবিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী মুশফিক। কথা প্রসঙ্গে মুশফিকের বোন বলেন, ‘সকালে খুব ঠান্ডা থাকে। তাই গতকালই ও আমার বাসায় চলে আসছে।’

নিবন্ধন বুথে নিবন্ধন শেষে কেউ কেউ মঞ্চে গিয়ে তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করছে। পর্বটি সঞ্চালনা করছেন দিনাজপুর বন্ধুসভার সভাপতি মুনিরা শাহনাজ চৌধুরী। বেলা ১১টায় জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানের মূল পর্ব। এ পর্বে উপস্থিত থাকবেন প্রথম আলোর নির্বাহী সম্পাদক সাজ্জাদ শরীফ, দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম, বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মাসুদুল হক, দিনাজপুর সরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক জলিল আহমেদ, দিনাজপুর খেলাঘর আসরের সাবেক সভাপতি নুরুল মতিন সৈকত প্রমুখ।