প্রকাশ পাড়ুকোন, অনিমা, দীপিকা ও উজালা। ছবি : সংগৃহীত
প্রকাশ পাড়ুকোন, অনিমা, দীপিকা ও উজালা। ছবি : সংগৃহীত

করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলিউড তারকা দীপিকা পাড়ুকোনের বাবা ভারতীয় ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় প্রকাশ পাড়ুকোন। তাঁকে বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত শনিবার জ্বরে আক্রান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তাঁর অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল। এ ছাড়া করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন দীপিকার মা উজালা ও বোন অনিশাও। আপাতত তাঁরা বাড়িতেই আইসোলেশনে আছেন।

‘প্রকাশ পাড়ুকোন ব্যাডমিন্টন একাডেমি’র পরিচালক বিমল কুমার জানান, বেশ কিছুদিন আগে একাধিক উপসর্গ থাকায় দীপিকার বাবা, মা ও বোন করোনা পরীক্ষা করান। তিনজনেরই পজিটিভ ফল আসে। তবে আপাতত সবার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। এ সপ্তাহেই প্রকাশ পাড়ুকোনকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হতে পারে।

বিজ্ঞাপন
default-image

পরিবারের সঙ্গে দীপিকাও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, জানিয়েছে ফিল্ম ফেয়ার। পিংকভিলা জানাচ্ছে, দীপিকারও করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছে। গত সপ্তাহে তাঁর ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে সে রকমই আঁচ করা যাচ্ছে। মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতন করতে এক পোস্টে দীপিকা লিখেছেন, ‘আমাদের মতো লাখো মানুষ (আমি ও আমার পরিবারসহ) ভালো থাকতে হিমশিম খাচ্ছি। করোনার এই সংকটকালে আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের পরিচর্যার কথা ভুলে গেলে চলবে না। এটাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। মনে রাখবেন আপনি একা নন, আমরাও আপনার সহযাত্রী। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো আমরা আশাবাদী।’ তবে দীপিকার টিমের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে নিশ্চিত কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তবে ভারতীয় ম্যাগাজিন ফিল্মফেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। দীপিকাও মা-বোনের সঙ্গে ব্যাঙ্গালুরুর বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে আছেন।

default-image

দীপিকাকে শিগগির দেখা যাবে কবির খান পরিচালিত ছবি ‘এইটি থ্রি’তে। ছবিতে তাঁর স্বামী রণবীর সিংও অভিনয় করেছেন। এ ছাড়া শকুন বার্তার নতুন ছবিতে দেখা যাবে অনন্যা পান্ডে ও সিদ্ধান্ত চতুর্বেদীর সঙ্গে। জন আব্রাহাম ও শাহরুখ খানের ‘পাঠান’ ছবিতেও কাজ করছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
default-image

অন্যদিকে দীপিকার বাবা ভারতের জনপ্রিয় ক্রীড়াব্যক্তিত্ব প্রকাশ পাড়ুকোন আশির দশকে ভারতের জাতীয় দলে ব্যাডমিন্টন খেলতেন। ১৯৮৩ সালে তিনি ব্রোঞ্জ পদক জয় করেন। প্রকাশ পাড়ুকোন প্রথম ভারতীয় হিসেবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে পদক জিতেছিলেন।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন